আওয়ামীলীগ নেতার নেতৃত্বে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জেলা শাখা ছিনতাই

মোজাম্মেল হোসেন সজল: ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির মুন্সীগঞ্জ জেলা শাখার কমিটি ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। জেলা আওয়ামী লীগের এক নেতার নেতৃত্বে কমিটি ছিনতাই হয় বলে অভিযোগ তুলেছেন সংগঠনের জেলা শাখার আহবায়ক গিয়াসউদ্দিন আহমেদ পিন্টু। এমনকি চলমান আহবায়ক কমিটিকে না জানিয়ে এ গঠিত কমিটি অবৈধ বলে দাবি করেন তিনি।এদিকে কমিটি ছিনতাই হওয়ার পর থেকে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি জেলার শাখার নেতৃবৃন্দের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এছাড়া অগণতান্ত্রিক পন্থায় ছিনতাইয়ের কায়দায় গঠিত কমিটি পকেট কমিটি বলে দাবি করা হয়। ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জেলা শাখার আহবায়ক গিয়াসউদ্দিন আহমেদ পিন্টু অভিযোগ করে জানান, গত ১২ মে কমিটছিনতাই হয়ে গেছে। জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জামাল হোসেনের নেতৃত্বে সুবিধাভোগী কতিপয় ব্যক্তি তার নেতৃত্ব দিয়েছেন। এমনকি ওই আওয়ামী লীগ নেতা কমিটি ছিনতাই করে নিজেই হয়েছেন সভাপতি। তিনি দাবি করে জানান, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি সারাদেশের ন্যায় মুন্সীগঞ্জেও আহবায়ক কমিটির মাধ্যমে তাদের কার্যক্রম চালাচ্ছে। প্রতিটি উপজেলায় তাদের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। তাই তাদের চলমান কমিটিই বৈধ বলে দাবি করেন আহবায়ক গিয়াসউদ্দিন আহমেদ পিন্টু। অপর সূত্র জানায়, গিয়াসউদ্দিন আহমেদ পিন্টু আহবায়ক ও আনোয়ার হোসেন এলানকে সদস্য সচিব করে গঠিত আহবায়ক কমিটিকে না জানিয়ে ও কোন সভা আহবান না করেই অগণতান্ত্রিক পন্থায় কমিটি গঠন করা হয়েছে। যা নিন্দনীয়।

এ প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও গঠিত কমিটির সভাপতি মো. জামাল হোসেন কমিটি ছিনতাইয়ের অভিযোগ ভিত্তিহীন দাবি করে জানান, কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে জেলা শাখার নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, নতুন কমিটিতে তিনি হয়েছেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন এম এ কাদের মোল্ল­া। নতুন কমিটির সাধারণ সম্পাদক এম এ কাদের মোল্লা জানান, গঠিত নতুন কমিটির কেন্দ্রীয় অনুমোদন হয়নি। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে অনুমোদন পাওয়া যাবে বলে জানান এম এ কাদের মোল্লা।

বাংলা ২৪ বিডি নিউজ

Leave a Reply