বঙ্গবন্ধু বিমানবন্দর নির্মাণে বিনিয়োগ প্রস্তাব মালয়শিয়ার

প্রস্তাবিত বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণে আর্থিক বিনিয়োগে সরকারের কাছে লিখিত প্রস্তাব দিয়েছে মালয়শিয়া। সফররত মালয়েশীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এস স্যামি ভেলুর নেতৃত্বে একটি বিশেষ প্রতিনিধি দল বুধবার বেসামরিক বিমান পরিবহনমন্ত্রী ফারুক খানের সঙ্গে দেখা করে এই প্রস্তাব দেন।

তাদের লিখিত প্রাথমিক প্রস্তাবে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণে ৫০০ থেকে ৬০০ কোটি ডলার বিনিয়োগের সম্ভাব্যতার কথা তুলে ধরা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফারুক খান।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণে বাংলাদেশ সরকার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিলে মালয়শিয়া এখানে বিনিয়োগ করতে এগিয়ে আসবে। মুন্সীগঞ্জের আড়িয়ল বিলে বঙ্গবন্ধু বিমানবন্দরের স্থান সরকার প্রাথমিকভাবে নির্ধারণ করলে স্থানীয়দের বিরোধিতার মুখে পিছু হটতে হয়।

ফারুক খান মালয়শিয়ার প্রতিনিধি দলকে বলেছেন, বঙ্গবন্ধু বিমানবন্দরের জন্য সরকার ইতোমধ্যে সাতটি স্থান চিহ্নিত করেছে। প্রয়োজনীয় তহবিল সংগ্রহ হলে সরকার এই কাজে হাত দিবে।

সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বে (পিপিপি) এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হবে বলে তিনি জানান।

দেশে আরেকটি বিমানবন্দরের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে ফারুক খান বলেন, বর্তমানে প্রতিদিন প্রায় ৪০০ বিমান বাংলাদেশের ওপর দিয়ে যাতায়ত করে। ৩০টির বেশি বিমান সংস্থা বাংলাদেশে পরিবহন কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

“বাংলাদেশের ৭৫ লাখ লোক বিদেশে কর্মরত। সরকার নতুন করে বিদেশে আরো ৫০ লাখ লোকের কর্মসংস্থানের পরিকল্পনা ও উদ্যোগ নিয়েছে। বাংলাদেশে অভ্যন্তরীণ বিমান যাত্রীর সংখ্যাও বেড়েছে। এতে দেশে একটি নতুন বিমানবন্দরের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে.” বলেন তিনি।

মালয়শিয়া শাহজালাল বিমানবন্দর আধুনিকায়নেও বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলে জানান মন্ত্রী।

মন্ত্রী দেশের পর্যটন খাতে বিনিয়োগ এবং কক্সবাজার ও কুয়াকাটায় পর্যটন অবকাঠামো উন্নয়নেও তাদের সহযোগিতা চান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

Leave a Reply