আওয়ামীলীগ নেতার লিজ বাতিল করে ইউএনও-এসিল্যান্ড বিপাকে

প্রায় ৬শ’ বছরের পুরনো ঐতিহাসিক হাঁসাড়া আলম গাজীর দীঘির লিজ বাতিল করেছে উপজেলা প্রশাসন। দৈনিক আজকালের খবরসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে দীঘি ভরাটের খবর প্রকাশের পর শ্রীনগরের ভূমিদস্যু আওয়ামী লীগ নেতা মন্টুর লিজ বাতিল করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পরিবেশ অধিদপ্তর, মুন্সীগঞ্জ কার্যালয়কে চিঠি ইস্যু করা হয়। এতে উল্টো বিপাকে পড়েছেন শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সঞ্জয় চক্রবর্তী ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দা নূর মহল আশরাফী।জানা গেছে, বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সূত্র ধরে ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসকের উপস্থিতিতে মুন্সীগঞ্জ জেলা কো-অর্ডিনেটর গত সভায় বিষয়টি উস্খাপন করা হয়।

সে মোতাবেক মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরকে গত ২৮ মে শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে ২০১১-২৪৮ নং স্মারকে বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষন আইন ১৯৯৫ এর ৬ঙ ধারায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুনরায় চিঠি দেয়া হয়। কিন্তু মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক সোনিয়া আক্তার পঅ/মুঃজেঃঅঃ /অভি:শ্রীনগর-৩৯/২০১২/প্রশা-৯১ নং চিঠিতে প্রভাবশালী ওই আওয়ামীলীগ নেতাকে পাশ কাটিয়ে উল্টো বৈধতার সনদ দিয়ে দেন। সরেজমিনে ড্রেজার বসিয়ে মাটি ভরাটের সুষ্পষ্ট প্রমাণ থাকার পরও সরকারি জমিতে কোন মাটি ভরাট হয়নি মর্মে পরিবেশের ওই কর্মকর্তা মিথ্যা রিপোর্ট দেন। ফলে ভূমিদস্যু মন্টু ওই পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালকের সহায়তায় মহামান্য হাইকোর্টে বিষয়টি রিট করেন। ইতিমধ্যে ইউএনও এবং এসিল্যান্ডকে তিনি উকিল নোটিস পাটিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় দীঘি এলাকার স্থানীয় বাসিন্দাদের উৎকন্ঠা আরও বেড়ে গেছে। উপজেলা প্রশাসন, এলাকাবাসি ও স্থানীয় সব সাংবাদিকরা দীঘি ভরাটের বিষয়টি প্রত্যক্ষ করেছেন। অথচ, আদৃশ্য কারণে পরিবেশ অধিদপ্তর আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী ওই নেতার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহণে অপারগতা প্রকাশ করছেন। এ ব্যাপারে পরিবেশ সহকারি পরিচালক সোনিয়া আক্তার বলেন, পুকুরের কোন অংশ সরকারি তা আমাদের পক্ষে বুঝা সম্ভব নয় বলেই ব্যবস্থা গ্রহণ করিনি। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সঞ্জয় জানান, লিজ বাতিলের পূর্বে মন্টুকে নোটিশ করা হয়েছে। সন্তোষজনক জবাব না দিয়ে ২মাস বেড রেস্ট, আগুনে কাগজ পত্রাদি পুড়ে গেছে ইত্যাদি নানান টাল বাহানা করেছে সে। পরিবেশ অধিদপ্তর সহকারি পরিচালক (মুন্সীগঞ্জ)কে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পরপর ২বার চিঠি দিয়েছি। কিন্তু সে মিথ্যা রিপোর্ট দিয়েছে। এতে ভূমিদস্যু ও পরিবেশ বিনষ্টকারীরা আরও উৎসাহিত হবে বলে তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।

বাংলা ২৪ বিডি নিউজ

Leave a Reply