পদ্মার তীর ঘেঁষে অবৈধ বালু উত্তোলনে ১০ গ্রাম হুমকির মুখে

মুন্সীগঞ্জে পদ্মা নদীর তীর ঘেঁষে ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটায় দশটি গ্রাম এখন হুমকির মুখে রয়েছে। নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার আশংকায় নদী পাড়ের মানুষ আতঙ্ক-উৎকণ্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন। সদর উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের সর্দারকান্দি ও নমকান্দি গ্রাম ঘেঁষে বালু খেকোরা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার বালু মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে।বর্ষা এলেই নদীর বালু খেকোরা তীরে এসে মানুষের জমিজমা দেদারছে কেটে নিয়ে যায়।

জানা যায়, এলাকার আওয়ামীলীগ নামধারী খোকন সরকার ও ময়না প্রধানের নেতৃত্বে গত এক মাস ধরে নদীতে ড্রেজার বসিয়ে তীর ঘেঁসে মানুষের জমিজমা, বসতবাড়ি কেটে নিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে করে ভাঙনের মুখে পড়েছে এলাকার ১০টি গ্রামের বিস্তীর্ণ জনপদ। এ বিষয়ে বাংলাবাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আশরাফুল ইসলাম নান্নু জানান, এখন মাটি কাটলে বর্ষা মৈাসুমে আবার নতুন মাটি এসে ওই স্থান ভরাট হয়ে যাবে। ভাংঙনের কোন আশংকা থাকবেনা। সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা নিলুফার ইয়াসমিন লিলি জানান, নদীর তীর ঘেঁসে ড্রেজার লাগিয়ে বালু মাটি কেটে নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে তিনি অবগত নন বলে জানান। মুন্সীগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল বাসার অবৈধ ভাবে মাটি কাটার বিষয়টি জানেনা বলে জানান।

বাংলা ২৪ বিডি নিউজ

Leave a Reply