পদ্মাসেতু নির্মাণে চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষরের প্রস্তাব মালয়েশিয়ার

পদ্মাসেতু নির্মাণে চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষরের লক্ষ্যে খসড়া প্রস্তাব দিয়েছে মালয়েশিয়া। বৃহস্পতিবার বিকেলে সেতু ভবনে মালয়েশিয় সরকারের দক্ষিণ এশিয়ার অবকাঠামো বিষয়ক বিশেষ দূত দাতো সেরি সামি ভেলু যোগাযোগ ও রেলপথমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের হাতে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাবের কপি তুলে দেন।

পরে মন্ত্রী উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘‘খসড়া প্রস্তাবটি যাচাই-বাছাই করা হবে। প্রথমে আমরা নিজেদের মধ্যে প্রস্তাবের বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা করবো। তারপর মালয়েশিয়ার সঙ্গে আলোচনা করবো।’’

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘‘মালয়েশিয়ার প্রস্তাবটি গ্রহণের ক্ষেত্রে এবং আলোচনায় আমাদের জাতীয় স্বার্থ, অর্থনৈতিক স্বার্থ এবং জনগণের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।’’

বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, অর্থ মন্ত্রণালয় বিষয়টির সম্মানজনক সমাধানের চেষ্টা করছে। মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়া সরকারের সঙ্গে সমঝোতার পর চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষরের আগ পর্যন্ত বিকল্প পথ খোলা রয়েছে। এখনো সমঝোতার দরজা বন্ধ হয়নি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, মালয়েশিয়ার প্রস্তাবে জাতীয় স্বার্থ অক্ষুন্ন রেখে সমঝোতায় পৌঁছানো গেলে অনতিবিলম্বে একটি চুক্তিতে উপনীত হওয়া সম্ভব হবে। এরপর কয়েক মাসের মধ্যে প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া শেষ করে গ্রাউন্ড-ব্রেকিং অনুষ্ঠান করার বিষয়ে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, পদ্মাসেতু এদেশের জনগণের স্বপ্নের সেতু। এ সেতু নির্মিত হলে একদিকে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জিত হবে, অপরদিকে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির ক্ষেত্র প্রসারিত হবে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ১০ এপ্রিল কুয়ালালামপুরে মালয়েশিয়ার সঙ্গে পদ্মাসেতুতে অর্থায়নের বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করে। এ ধারাবাহিকতায় গত ২৮ মে দাতো সেরি সামি ভেলুর নেতৃত্বে এক প্রতিনিধিদল যোগাযোগমন্ত্রীর কাছে পদ্মাসেতুতে অর্থায়নের বিষয়ে ধারণা-প্রস্তাব পেশ করে।

বৃহস্পতিবার যোগাযোগমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে মালয়েশিয় সরকারের বিশেষ দূত দাতো সেরি সামি ভেলু ১৩ সদস্যের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন। এ সময় সেতু বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরিচালক প্রকৌশলী সফিকুল ইসলামসহ সেতু বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply