মাওয়া-কাওড়াকান্দি ফেরি চলাচল হুমকির মুখে

মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে ফেরি চলাচল সচল রাখতে জরুরি বার্তা পাঠিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিসি)। দ্রুত ড্রেজিং শুরু করা না হলে গুরুত্বপূর্ণ এ নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, উজান থেকে পলিমাটি নেমে আসায় কবুতরখোলা চ্যানেলে ডুবোচর সৃষ্টি হয়েছে। এতে মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে।

এ সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) কাছে বৃহস্পতিবার জরুরি বার্তা পাঠিয়েছে বিআইডব্লিউটিসি মাওয়াঘাট কর্তৃপক্ষ।

বিআইডব্লিউটিসি মাওয়াঘাট অফিসের ব্যাবস্থাপক (মেরিন) আব্দুস সোবহান বাংলানিউজকে জানান, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের সঙ্গে পলিমাটি আসায় মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটের কবুতরখোলা চ্যানেলে পলিজমে একটি ডুবোচর সৃষ্টি হয়েছে।

চরটি আস্তে আস্তে বড় হচ্ছে। এটিকে সবসময় পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

‌বৃহস্পতিবার দুপুরে বিআইডব্লিউটিএ’র উর্ধতন কর্মকর্তাদের জরুরি বার্তায় বিষয়টি জানানো হয়েছে। যে হারে পলি জমছে, তাতে ঈদের আগেই কবুতরখোলা চ্যানেলের মুখটি বন্ধ হওয়ার আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন মেরিন আব্দুস সোবহান।

এ ব্যাপারে বিআইডব্লিউটিএ এর সহকারী পরিচালক এসএম আজগর আলী বাংলানিউজকে জানান, মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটের কবুতরখোলা চ্যানেলের মুখে মাঠ পর্যায়ে হাইড্রোগ্রাফি জরিপ কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে।

ফেরিগুলো যাতে ডুবোচরে আটকে না যায় সেজন্য পথনির্দেশক ড্রামবয়া স্থাপন করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, মাওয়া-কাওড়াকান্দি ফেরিঘাট দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার সঙ্গে সড়ক যোগাযোগের গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম।

এ ঘাট দিয়ে প্রতিদিন যাত্রীবাহী বাস, ট্রাকসহ বিভিন্ন ধরনের প্রায় ২ হাজার যানবাহন এবং লঞ্চ, স্পিডবোট ও ট্রলারযোগে লক্ষাধিক যাত্রী যাতায়াত করে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply