ঈদে হাবিব-ন্যান্সি জুটির ‘তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা’

বছরের প্রথম দিকে সংগীতের আলোচিত জুটি হাবিব-ন্যান্সির ‘রঙ’ মুক্তি পাওয়ার পর এবারের ঈদে দুজনেরই অনুপস্থিত থাকার কথা ছিল। অন্যদিকে ২০১০ সালে মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের চলচ্চিত্র ‘প্রজাপতি’র গানে সফলতার পর গত দুই বছর আর কোনো চলচ্চিত্রে গান করেননি হাবিব। এবারের ঈদে সবাইকে চমক লাগিয়ে অ্যালবাম প্রকাশ করছেন হাবিব। চলচ্চিত্রের গান নিয়ে হাবিবের এ অ্যালবামটির নাম ‘তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা’। ১২ আগস্ট এটি প্রকাশিত হতে যাচ্ছে। সেদিন রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে অ্যালবামটির মোড়ক খোলা হবে।

‘তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা’ হাবিবের একক গানের অ্যালবাম নয়, অ্যালবামটিতে হাবিবের সুর-সংগীত এবং কণ্ঠের সঙ্গে সহশিল্পী হিসেবে থাকছেন ন্যান্সি, কনা ও ইমরান। অ্যালবামটিতে মোট গান থাকবে সাতটি।

হাবিব বলেন, ‘প্রজাপতির পর আমি আসলে সে অর্থে চলচ্চিত্রে কাজ করিনি। ভেবেছিলাম লম্বা বিরতি নিয়ে চলচ্চিত্রের গান করব। মাস দুয়েক আগে যখন এ প্রকল্পটি হাতে আসে, তখন এর গল্প ও নির্মাণভাবনা শুনে মুগ্ধ হই। তাই কাজটি করতে রাজি হই।’

বরাবরই গান করার ক্ষেত্রে বেশ সময় নিয়ে থাকেন হাবিব। তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা করার ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম হয়েছে। মাস খানেক ধরে চলচ্চিত্রটির সাতটি গান নিয়ে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন হাবিব। এরই মধ্যে শেষ করেছেন বেশ কয়েকটি গানের রেকর্ডিং। বাকিগুলোর কাজও শিগগিরই শেষ হয়ে যাবে বলে জানান হাবিব।

তাড়াহুড়ো করে গান করা প্রসঙ্গে হাবিব বলেন, ‘মাঝেমধ্যে একটু তাড়াহুড়াও করতে হয়। তা ছাড়া চলচ্চিত্রের গানের প্রস্তাব গত দুই বছরে অনেক পেয়েছি। কিন্তু কাজগুলো করার আগ্রহ পাইনি। যেমনটা আগ্রহ পাচ্ছি এ কাজটি করে। তা ছাড়া রোজার ঈদটাকে আমি মিস করতে চাইনি। আশা করি মন্দ হবে না।’

হাবিব বলেন, ‘সাতটি গানের মধ্যে আমি এবং ন্যান্সির দ্বৈত গান দুটি। আমার একক তিনটি। ন্যান্সির একক একটি। আর একটি গানে থাকবে কনা ও ইমরান।’

‘তুমি সন্ধ্যার মেঘমালা’র গানগুলো লিখেছেন কবির বকুল, শফিক তুহিন ও চিরকুট ব্যান্ডের সুমি।

প্রথম আলো

Leave a Reply