সমঝোতার শর্তে আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদকের জামিন মঞ্জুর

জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মুন্সীগঞ্জ শহর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন খান স্বপনকে (৪৬) সোমবার বিকেল ৫ টায় জামিন মঞ্জুর করেছে আদালত। সমঝোতার শর্তে আগামী ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ জামিন দেয়া হয়। ১০ হাজার টাকা বোইল বন্ডে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের জিম্মায় এ জামিন মঞ্জুর করেণ অতিরিক্ত চিপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোয়াজ্জেম হোসেন।

সরকারি কাজে বাধা দেওয়া ও মানহানির অভিযোগ এনে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তাওহীদা আক্তার বাদী হয়ে অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন স্বপনকে বিরুদ্ধে অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। সিআর মামলা নং-(৩১৫/১২)। আদালত গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করলে রোববার বিকেল ৪টায় আদালত সংলগ্ন রাস্তা থেকে তাকে পুলিশ গ্রেফতার করে এ দিনই সন্ধায় তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমারত হোসেন বলেন, এই জামিনের ব্যাপারে আগে চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে আন্ডার টেকিং দেয়া হয়েছে। সমঝোতার শর্তে আগামী ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।

এদিকে সমঝোতা কমিটির অন্যতম সদস্য ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট কাজী আফছার হোসেন নিমু বলেন, অ্যাডভোকেট অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন খান স্বপন মাথা গরম করে একটু ভুল করে ফেলেছেন। আমরা কিছু দিনের মধ্যে বিষয়টি সমঝোতা করে ফেলবো।

অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন খান স্বপন এ ঘটনার বিষয়ে সাংবাদিকদের কাছে কোন মন্তব্য করেনি।

উল্লেখ্য যে, সরকারি কাজে বাধা দেওয়া ও মানহানির অভিযোগ এনে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তাওহীদা আক্তার বাদী হয়ে অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন স্বপনকে বিরুদ্ধে অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালত গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করলে রোববার বিকেল ৪টায় আদালত সংলগ্ন রাস্তা থেকে তাকে পুলিশ গ্রেফতার করে। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সদর থানা পুলিশ তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেয়। এদিকে গ্রেফতারের পর তার সমর্থিত আইনজীবীরা আদালত চত্তর থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে সদর থানার সামনে প্রতিবাদ সভা করে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাসার জানান, সরকারি কাজে বাধা দেওয়া ও মানহানির অভিযোগে আদালতে দায়ের করা সিআর মামলায় (নং ৩১৫/১২) ওয়ারেন্ট জারি করা হলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তিনি আরও জানান, সরকারি কাজে বাধা দেওয়া ও বিচারককে মানহানি করার অভিযোগে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তাওহীদা আক্তার রোববার দুপুরে অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোয়াজ্জেম হোসেন আদালতে এড্যাভোকেট সালাউদ্দিন খান স্বপনকে আস্বামী করে সিআর মামলা করেন। এতে বিচারক মামলার আসামির বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করেন।

টাইমস্ আই বেঙ্গলী
==================


মুন্সীগঞ্জে আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদকের জামিন

সরকারি কাজে বাধা দেয়া ও মানহানির অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া মুন্সীগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন স্বপনের (৪৮) জামিন মঞ্জুর করেছে আদালত। সোমবার বিকেল পাঁচটার দিকে অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আবেদনের প্রেক্ষিতে সমঝোতা শর্তে আগামি ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তার এ জামিন মঞ্জুর করেন।

আদালত সূত্র জানায়, সোমবার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোয়াজ্জেম হোসেনের আদালতে জামিনের আবেদন করা হয়। এতে আদালতের বিচারক সমঝোতা শর্তে আগামি ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গ্রেফতার হয়ে হাজতে থাকা মুন্সীগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন খান স্বপনের জামিন মঞ্জুরের আদেশ দেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমারত হোসেন জামিন মঞ্জুর করার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের জিম্মায় এ জামিন মঞ্জুর করে সমঝোতা শর্তে আগামি ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জামিন মঞ্জুরের নিদের্শ দিয়েছেন।

তিনি আরো জানান, এর আগে জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন খান স্বপনের পক্ষে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে মুচলেকা দাখিল করা হয়।

উল্লেখ্য, সরকারি কাজে বাধা দেয়া ও মানহানির অভিযোগে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তাওহীদা আক্তার রোববার মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সিআর মামলা করেন।

এতে আদালতের বিচারক আসামির বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করলে পুলিশ এদিন বিকেলেই অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন থান স্বপনকে গ্রেফতার করে।

পরে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে সালাউদ্দিন খানস্বপনকে আদালতের মাধ্যমে হাজতে পাঠানো হয়।

বার্তা২৪

Leave a Reply