টেলি সামাদকে হুমকির অভিযোগে আটক যুবক কারাগারে

মুন্সীগঞ্জে সাবেক প্রেসিডেন্ট ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ-এর স্বজনদের পৈতিক সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জের ধরে চলচ্চিত্র অভিনেতা টেলি সামাদকে মোবাইল ফোনে হুমকি ও চাঁদা দাবির ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত যুবককে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। শনিবার সকাল ১০ টার দিকে গ্রেপ্তারকৃত সোহেল (৩৫)-কে আদালতে পাঠানো হয়। আদালত দুপুরে তাকে জেলা করাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে শহর সংলগ্ন নয়াগাঁও গ্রাম থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। সোহেল নয়াগাঁও গ্রামের ওমর আলীর ছেলে।

শুক্রবার বিকেল ৪ টার দিকে তাকে আদালতে পাঠালে পুলিশ কাস্টরি না থাকায় পুনরায় তাকে মুন্সীগঞ্জ থানা হাজতে এনে রাখা হয়। শুক্রবার রাত ৭ টার দিকে ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ-এর ভাতিজা টেলি সামাদের চাচাতো ভাই কবির হোসেন বাদী হয়ে মোবাইল ফোনে হুমকি ও চাঁদা দাবির ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ মামলায় টেলি সামাদের ভাই প্রয়াত চিত্রশিল্পী আব্দুল হাইয়ের ছেলে ও ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ-এর নাতি শাহীন রেজা কাজলকে প্রধান আসামি করা হয়েছে।


মামলায় ৫ লাখ টাকার চাঁদা দাবির কথা উল্লেখ করা হয়েছে। মুন্সীগঞ্জ সদর থানার এসআই নজরুল ইসলাম জানান, সাবেক প্রেসিডেন্ট ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ-এর পৈতিক সম্পত্তি নিয়ে টেলি সামাদ গং ও তার ভাই প্রয়াত চিত্রশিল্পী আব্দুল আইয়ের ছেলে শাহীন রেজা কাজল গংয়ের বিরোধ চলে আসছে।

এ সম্পত্তি নিয়ে আদালতে মামলা ও থানায় পাল্টা-পাল্টি জিডি হয়েছে। এ সম্পত্তির ভাগ-বাটোয়ারার জন্য সীমানা নির্ধারণ করার লক্ষ্যে গত ১৯ সেপ্টেম্বর সকালে টেলি সামাদ ও কবির হোসেন গং নয়াগাঁওয়ের বাড়িতে সার্ভেয়ার নিয়ে আসে। এ সময় শাহীন রেজা কাজল ও সোহেল ২টি মোবাইল ফোনে সার্ভেয়ার ও টেলি সমাদ গংকে হুমকি ও সীমানা নির্ধারণ করতে হলে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

এতে সার্ভেয়ার জমি না মেপে ঘটনাস্থল থেকে চলে যাওয়ায় জমির মাপ-জোপ ভন্ডুল হয়ে যায়। এ ঘটনায় টেলি সামাদ থানায় মৌখিক অভিযোগ দায়ের করলে বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে পুলিশ সোহেলকে আটক করে।

এ ব্যাপারে শাহীন রেজা কাজল বলেন, “আদালতে জমি নিয়ে মামলা, তাদের বিরুদ্ধে সমন জারি, আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্বেও অন্যায়ভাবে আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে জমি দখল করার চেষ্টা চালাচ্ছে। সরকারি সার্ভেয়ার এনে সীমানা নির্ধারণের জোরপূর্বক জমি বন্টন করতে চাইছে। এলাকার নিরীহ মানুষকে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।

জাস্ট নিউজ
================

মুন্সীগঞ্জে সাবেক রাষ্ট্রপতি নাতির বিরুদ্ধে মামলা

বাংলা ছায়াছবির জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা টেলি সামাদকে মোবাইল ফোনে হুমকি ও ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগে সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রফেসর ড. ইয়াজউদ্দিন আহমেদের নাতি শাহীন রেজা কাজলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে সদর থানায় এ মামলা রুজু করা হয়।

এদিকে, অভিনেতা টেলি সামাদকে হুমকি ও চাঁদা দাবির অভিযোগে সোহেল নামে এক যুবককে বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে শহরের কাছের নয়াগাঁও এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।


১৯ ঘণ্টা পর সাবেক রাষ্ট্রপতির নাতি কাজলকে ১নং ও গ্রেফতার যুবক সোহেলকে ২নং আসামি দেখিয়ে শুক্রবার রাতে টেলি সামাদের পক্ষে চাচাত ভাই কবীর বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

এছাড়া ৩৫ ঘণ্টা থানা হাজতবাস থাকার পর শনিবার সকাল ১১টার দিকে গ্রেফতার যুবক সোহেলকে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। আদালত দুপুরের তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এবিষয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল বাসার বাংলানিউজকে জানান, অভিনেতা টেলি সামাদকে গত ১৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে পৃথক ২টি মোবাইল ফোন থেকে হুমকি ও ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়।

এ ঘটনায় কৌতুক অভিনেতার চাচাত ভাই কবীর হোসেন বাদী হয়ে অভিযোগ দাখিল করেন। এরপরই শুক্রবার রাত ৭টার দিকে সদর থানায় দাখিল করা অভিযোগ মামলা হিসেবে নথিভূক্ত করা হয়।
তিনি আরও জানান, শহরের কাছে পূর্ব নয়গাঁও এলাকায় সাবেক রাষ্ট্রপতির পৈত্রিক বসতভিটে নিয়ে অংশীদারদের মধ্যে বিরোধ চলছে।

উল্লেখ্য, চিত্রভিনেতা অভিনেতা টেলি সামাদ সাবেক রাষ্ট্রপতি ইয়াজউদ্দিনের ভাতিজা ও শাহিন রেজা কাজল সর্ম্পকে নাতি হয়। তার বাবার নাম প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী প্রয়াত আব্দুল হাই। পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে সাবেক রাষ্ট্রপতির ভাতিজা ও নাতির মধ্যে পারিবারিক বিরোধ চলছে, যা বর্তমানে প্রকাশ্য রুপ নিয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
=================

Leave a Reply