হুমকির মুখে মাওয়া ঘাট

পদ্মা নদীর আকস্মিক ভাঙ্গনের কবলে পড়ে মাওয়ার ১নং ফেরিঘাট পানির নিচে তলিয়ে গেছে। হুমকির মুখে অন্য দুটিও। অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, হঠাৎ করে মাওয়া বন্দরের ২নং ফেরি ঘাটের ১৫০০ বর্গফুট এলাকা প্রায় ৪০ ফুট গভীরতায় ডেবে যায়। এতে করে জরুরি ভিত্তিতে বিআইডব্লিউটিএ পন্টুনসহ অন্যান্য স্থাপনাদি নিরাপদে সরিয়ে নেয়া সম্ভব হলেও ব্যক্তি মালিকানাধীন কয়েকটি দোকান-পাট নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যায়।


বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান ড. মো. শামছুদ্দোহা খন্দকার জাস্ট নিউজকে জানান, ভাঙ্গন কবলিত ফেরিঘাট এলাকা তিনি ও কর্মকর্তাদের নিয়ে সরেজমিনে পরিদর্শন করেছেন। পাশাপাশি তিনি যে কোনো মূল্যে মাওয়া বন্দরে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল স্বাভাবিক রাখতে বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, দ্রুত গতিতে পানি কমছে। মাওয়ার ১ ও ৩ নম্বর ঘাট রাক্ষার চেষ্টা চলছে। ৮শ’ ফুট উজানে নতুন করে ঘাট স্থাপনের কাজ চলছে। এ ঘাটের কাজ শেষ ও ফেরি চলাচলের উপযোগী করতে অন্তত ৫ দিন সময় লাগবে। এ পর্যন্ত ১ ও ৩ নম্বর ঘাট দিয়েই ফেরি চলাচল করবে।

তিনি বলেন, মাওয়া নদী বন্দরের নতুন লঞ্চ ঘাটের স্পিডবোট ঘাট এলাকায় দীর্ঘ ফাটল দেখা যায়। কিছুক্ষণের মধ্যেই ওই এলাকার প্রায় ১২ হাজার বর্গ ফুট এলাকা আনুমানিক ২০ ফুট গভীরতায় ভেঙ্গে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এতে করে ঐ এলাকায় বেশ কিছু দোকান-পাট নদী গর্ভে তলিয়ে যায়। প্রচন্ড স্রোতের তোড়ে মাওয়া নতুন পার্কিং ইয়ার্ডের সামনের প্রায় ৫০ ফুট দীর্ঘ এলাকায় বালি ভরাটকৃত অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ঘাট রক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ডকেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে বলেও বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান জাস্ট নিউজকে জানান।

জাস্ট নিউজ

Leave a Reply