গণতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হলে প্রধানমন্ত্রী দায়ী থাকবেন: বি. চৌধুরী

বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী দেশ যাতে গণতন্ত্রহীন না হয় সেই লক্ষ্যে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি মেনে নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি শুক্রবার বিকালে তার ৮০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দলের বারিধারার প্রেসিডিয়াম কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় এ আহ্বান জানান। দলের নেতাকর্মীরা কেক কেটে ও ফুলের তোড়া দিয়ে এই বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান।

এ সময় দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. নূরুল আমিন বেপারি, অধ্যাপক ড. আবু মোজাফফর আহম্মেদ, ইঞ্জিনিয়ার ইউসুফ আলী, মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সাহিদুর রহমান, উত্তরের সভাপতি মাহবুব আলী, সাধারণ সম্পাদক স্থপতি মাহফুজুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বি. চৌধুরী বলেন, দেশকে বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষার জন্য প্রধানমন্ত্রীর উচিত হবে, গোয়ার্তুমি ছেড়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি মেনে নেওয়া।


এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়াও প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি মেনে নিয়েছিলেন। সংবিধানে তত্ত্বাবধায়ক সরকার নাই, এটা সমস্যা নয়। সংবিধান সংশোধন করলেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার আবার বহাল করা যাবে। আর তা না হলে দেশে গণতন্ত্র থাকবে না এবং এর জন্য বর্তমান প্রধানমন্ত্রীই দায়ী হবেন।

তিনি বলেন, ‘‘যারা কোরআন ছুয়ে অথবা যার যার ধর্মগ্রন্থ ছুয়ে শপথ করবেন যে, ক্ষমতায় গেলে তারা ঘুষ, দুর্নীতি ও সন্ত্রাস করবেন না, বিরোধী দলের ওপর নির্যাতন-নীপিড়ন চালাবেন না, উদার গণতন্ত্র অনুসরণ করবেন, আমরা অবশ্যই তাদের সঙ্গে জোট করবো।’’

‘‘জোটবদ্ধ নির্বাচনের পর যিনি প্রধানমন্ত্রী হবেন তাকে জনগণের কাছে অঙ্গীকার করতে হবে, তিনি বা তার আত্মীয়-পরিজন ঘুষ খাবেন না, সন্ত্রাস করবেন না। ক্ষমতায় যাওয়ার পর যদি কোনো মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা সংসদ সদস্য বা তার পরিবারের কোনো সদস্যের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে, তা হলে তাকে ৭ দিনের মধ্যে বিদায় করতে হবে।’’

টেলিভিশনে টকশো’ সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে বি. চৌধুরী বলেন, টকশো’তে অংশগ্রহণকারীদের সিঁদকাটা চোরদের সঙ্গে তুলনা করা শিষ্টাচার বহির্ভুত। প্রধানমন্ত্রীর মুখে এমন কথা মানায় না।

হলমার্ক কেলেঙ্কারিসহ নানা আর্থিক দুর্নীতি করে দেশকে তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত করা হয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ঘুষ, দুর্নীতি না থাকলে এ দেশকে মালয়েশিয়ার সমপর্যায়ে নিয়ে যাওয়া মোটেও দু:সাধ্য নয়।

বিকল্পধারার প্রধান বলেন, বিকল্পধারা ধীরে ধীরে বিকশিত হচ্ছে এবং ভবিষ্যতে এই দল দেশকে সঠিক পথে পরিচালনায় সক্ষম হবে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply