মাওয়ায় ১ নম্বর ফেরিঘাট নদীগর্ভে বিলীন

মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে মাওয়ায় রোববার রাতে পদ্মার ভয়াবহ ভাঙনে চোখের পলকে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে মাওয়া ১ নম্বর ফেরিঘাট। রাত ৭ টার দিকে প্রায় ১০০ ফুট এলাকা নিয়ে আকস্মিক নদীবক্ষে হারিয়ে যায় ১ নম্বর ফেরিঘাটের পন্টুনটি। এ সময় পন্টুনে থাকা বিআইডব্লিউটিএ’র সহকারী পরিচালক আলী আজগরসহ আহত হয়েছেন ৭ জন।

অপর আহতরা হচ্ছেন-মাওয়া ১ নম্বর ফেরির পন্টুনের লস্কর করীম ফকির, বিআইডব্লিউটিসির প্রান্তিক সহকারী জাহিদুল ইসলাম। অপর আহতদের পরিচয় জানা যায়নি। এ ঘটনার পর থেকে মাওয়া ১ নম্বর ফেরিঘাট সম্পূর্ণ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এর আগে গত ৯ অক্টোবর ভাঙ্গনের কারণে ২ নম্বর ফেরিঘাট বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে মাওয়ায় ২টি ফেরিঘাট দিয়ে ফেরি পারাপার বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে ৩ নম্বর ফেরিঘাটটি সচল রয়েছে। এটিও ভাঙনের হুমকির মুখে রয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির মহাব্যবস্থাপক মো. আশিকুজ্জামান জানান, হঠাৎ করেই পদ্মার ভাঙনের মুখে ১ নম্বর ঘাটটি নদীগর্ভে সম্পূর্ণ বিলীন হয়ে যায়। এছাড়া আরো ৬-৭টি দোকানঘর ভাঙনে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এ সময় ফেরির পন্টুনে কর্তব্যরত অবস্থায় সংশ্লিষ্ট কয়েক জন স্টাফ ও আরো কয়েক ব্যক্তি পন্টুনসহ পদ্মার গর্ভে তলিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় বেশ কয়েক ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছে বলে আশঙ্কা করা হলেও আতঙ্কের কিছু নেই। নদীতে নিখোঁজ ব্যক্তিদের পদ্মারবক্ষ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা গেছে, মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটের মাওয়া প্রান্তে ৩টি ফেরিঘাটের মধ্যে ২টি ঘাট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় যানবাহন পারাপারে মারাত্নকভাবে ব্যহত হচ্ছে। মাওয়া পাড়ে যানজটে আটকা পড়েছে শত শত যানবাহন। এমতাবস্থায় যানজট প্রকট আকার ধারণ করেছে।

জাস্ট নিউজ

Leave a Reply