মাওয়ার পরিত্যক্ত ৩নং ঘাটটি চালু করার জন্য মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

মুন্সিগঞ্জ মাওয়া ঘাটে মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে ১হাজার হোটেল ও দোকানের মালিক শ্রমিকরা। দোকানদার মালিক বহুমুখি সমবায় সমিতির উদ্যোগে এই কর্মসূচিতে কমিটির সভাপতি মো. লাল মিয়া মাদবরের নেতৃত্বে আবুল কাশেম, সেকেন্দার সরকার, কাজী ইসহাকসহ ২শতাধিক নারি-পুরুষ মালিক ও শ্রমিক। মানব বন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হয়। মিছিলটি ৩নং ঘাট থেকে শুরু করে মাওয়া পুলিশ ফাঁড়ি হয়ে পুনরায় ৩নং ঘাটে গিয়ে শেষ হয়।

মানব বন্ধন কর্মসূচিটি ৩নং ঘাট নদী থেকে পুলিশ ফাড়ি পর্যমত্ম দীর্ঘ লাইনে ১ঘন্টা মানব বন্ধনে মালিক শ্রমিকরা বলেন, আমাদের শ্রমিক ও ছেলে মেয়ে স্ত্রী, মা-বাবা নিয়ে কুরবানীর ঈদ করতে পারবো না। ঘাটটিতে কোন ফাটলের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ঘাটটি কোন ঝুঁকির মধ্যেও নেই। কি কারণে ৩নং ঘাটটি কেন পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হয়েছে তা কেউ জানে না।


১০হাজার মালিক শ্রমিক ও স্ত্রী, ছেলে-মেয়ে, বাবা-মাকে নিয়ে অস্বাভাবিক জীবন যাপন করতে হবে। তাই অনতিবিলম্বে ৩নং ঘাটটি পুনরায় যথাস্থানে নিয়ে না আসলে বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষনা দেন। মানব বন্ধনে অংশ গ্রহণকারীরা অভিযোগ করে বলেন, সরকারের কোটি টাকা গচ্ছা দেওয়ার জন্যই কিছু অসাধু কর্মকর্তাদের সুপারিশে ৩নং ঘাটটি স্থানামত্মর করা হয়েছে। সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তদন্ত ও পরীক্ষা করে দেখলে বিষয়টি বুঝতে পারবেন। মাওয়া ঘাটের পানি কমে যাওয়ায় দেখা যায় এ ঘাটে কোন ফাটল নেই। পূর্বে যেভাবে ছিল সেভাবেই আছে।

টিএনবি

Leave a Reply