নূহ-উল-আলম লেনিনের পাঁচ গ্রন্থের প্রকাশনা

প্রকাশিত হলো নূহ-উল আলম লেনিনের পাঁচটি গ্রন্থ। এর মধ্যে দু’টি কাব্যগ্রন্থ ও তিনটি প্রবন্ধ সংকলন। প্রবন্ধের বইগুলো হচ্ছে কালান্তরের অভিযাত্রী, অস্থির সময় : অনিশ্চিত ভবিষ্যত ও আওয়ামী লীগ বদলালে দেশ বদলাবে। কাব্যগ্রন্থ দু’টি হচ্ছে অরণ্যের আগুনভরা রাতে ও আকাশের সিঁড়ি। শনিবার বিকেলে সুফিয়া কামাল জাতীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে এই পাঁচ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কথামালা, গান ও আবৃত্তিতে সাজানো ছিল পুরো আয়োজন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান। আলোচনায় অংশ নেন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক, জাতীয় কবিতা পরিষদের সভাপতি হাবীবুল্লাহ সিরাজী, অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর ও গ্রন্থসমূহের লেখক নূহ-উল-আলম লেনিন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়।

কণ্ঠশিল্পী সোমা রায় ও ড. মকবুল হোসেনের উদ্বোধনী সঙ্গীত দিয়ে শুরু হয় প্রকাশনা অনুষ্ঠান। সোমা রায় গেয়ে শোনান ‘জগতের আনন্দযজ্ঞে আমার নিমন্ত্রণ’। মকবুল হোসেন পরিবেশন করেন ‘আমার মুক্তি আলোয় আলোয়’। অনুষ্ঠানে আলোচনার পাশাপাশি ছিল লেখকের কবিতার আবৃত্তি পরিবেশনা। আবৃত্তিতে অংশ নেন সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর, ভাস্বর বন্দোপাধ্যায়, ফেরদৌসী কুহেলী ও আহ্্কামউল্লাহ্্।

সভাপতির বক্তব্যে হাবিবুর রহমান বলেন, নূহ-উল-আলম লেনিনের লেখা এই পাঁচটি গ্রন্থ পঞ্চ প্রদীপের মতো আমাদের মাঝে আলো ছড়াবে।

আলোচনায় সৈয়দ শামসুল হক বলেন, রাজনীতি ও কবিতাকে একসঙ্গে ধারণ করেছেন নূহ-উল-আলম লেনিন। তাঁর গদ্যে-পদ্যে উঠে এসেছে সমাজের চারপাশের বাস্তবতা। আর মানুষের প্রতিদিনের উচ্চারণ ও প্রচলিত বাক্যকে চমৎকারভাবে ব্যবহার করেছেন কবিতায়। লেখকের গদ্যের ঢংয়ে লেখা কবিতায় রয়েছে একটা সাঙ্গীতিক আবহ।
রসিকতার সুরে অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, এর আগে কখনও একসঙ্গে পাঁচটি বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে আসার সুযোগ হয়নি। একসঙ্গে এতগুলো গ্রন্থ পাঠককে উপহার দেয়ার জন্য লেখককে ধন্যবাদ। কালান্তরের অভিযাত্রী বইটিতে তিনি বঙ্গবন্ধু থেকে শুরু করে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ হাল আমলের অনেককে রাজনীতিককে বিশদভাবে আলোচনা করেছেন। সেসব লেখায় সৎভাবে প্রশংসার পাশাপাশি আছে বস্তুনিষ্ঠ সমালোচনা। সবমিলিয়ে বইটি খুবই তথ্যবহুল।

প্রসঙ্গত, লেখকের পাঁচটি গ্রন্থ প্রকাশ করেছে সময় প্রকাশন ও জোনাকী প্রকাশনী।

জনকন্ঠ

Leave a Reply