ছাত্রীকে যৌন হয়রানি শ্রীনগরে স্কুলশিক্ষককে জুতাপেটা

জেলার শ্রীনগর উপজেলায় চতুর্থ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করার খবর পেয়ে গতকাল মঙ্গলবার সকালে স্ত্রী নিজেই প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে স্বামী সহকারী শিক্ষককে জুতাপেটা করেছেন। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা ওই শিক্ষককে শ্রেণীকক্ষে অবরুদ্ধ করে রেখে মারধর করে।

শ্রীনগর উপজেলার কামারগাঁও-বারিখান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রণজিৎ কুমার একই স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে সোমবার স্কুলে যৌন হয়রানি করেন বলে ওই ছাত্রীর পরিবার অভিযোগ করে।


স্কুলছাত্রীর মুখে যৌন হয়রানির খবর জানতে পেরে মঙ্গলবার সকালে শত শত নারী-পুরুষ কামারগাঁও-বারিখান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এসে জড়ো হন। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা স্কুলকক্ষের ভেতরে অভিযুক্ত শিক্ষককে অবরুদ্ধ করে রেখে স্কুলমাঠে তারর শাস্তি দাবিতে স্লোগান দিতে থাকে। এ খবর শিক্ষকের বাড়ি পর্যন্ত পেঁৗছলে তার স্ত্রী নিজেই ছুটে আসেন সেখানে। এ সময় শিক্ষকের স্ত্রী নিজেই প্রকাশ্যে তাকে জুতাপেটা করেন। পরে দুপুর ১২টার দিকে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের মধ্যস্থতায় বিচারের আশ্বাস পেলে বিক্ষুব্ধ জনতা শান্ত হন। এ সময় অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে ওই শিক্ষক উদ্ধার পান।

এদিকে এ ঘটনায় অভিযোগ পেয়ে উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তাকে প্রধান করে দুই সদস্যের একটি তদন্ত দল গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শ্রীনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জামাল খান।

সমকাল

Leave a Reply