একঘরে এ পরিবার আর কত সইবে

শ্রীনগরের আইনজীবী সোহেলের মা-বোনকে লাঞ্ছনা
সমাজপতিদের বিরুদ্ধে আদালতে করা মামলা তুলে নিতে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে সমাজচ্যুত এক আইনজীবীর মা ও বোনকে সোমবার দুপুরে লাঞ্ছিত করেছে কতিপয় দুষ্কৃতকারী। দুপুর আড়াইটায় শ্রীনগর উপজেলার কেয়টখালী গ্রামে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের আইনজীবী সোহেল হোসেনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় দুষ্কৃতকারী গ্রুপটি সেখানে হট্টগোল সৃষ্টি করে। সমাজপতিদের ফতোয়ায় সমাজচ্যুত হওয়ার পর দেড় মাস ধরে নিজ বাড়ির বাইরে বসবাস করে আসছেন এ আইনজীবী। শুধু তার মা ও বোন বাড়িতে থাকেন। এ ছাড়া বাবা আনোয়ার শেখ কুয়েতে রয়েছেন।

আইনজীবী সোহেল হোসেন জানান, সোমবার দুপুরে ১০-১২ জনের একটি গ্রুপ তার বাড়িতে গিয়ে মা ও বোনকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে ও মামলা তুলে নিতে হুমকি-ধমকি দেয়। এ সময় তার মা সুফিয়া বেগম ও ছোট বোন আঁখি আক্তারকে লাঞ্ছিত করা হয়। পরে স্থানীয় ষোলঘর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজি আবদুস সালাম ও শ্রীনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে দুষ্কৃতকারী গ্রুপটি পালিয়ে যায়। সমাজপতিদের হাতে কোরবানির মাংস বিলি না করায় গত ৯ নভেম্বর কেয়টখালী জামে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আরফান খালাসী, স্থানীয় ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে সমাজপতিরা আইনজীবী সোহেল হোসেনের পরিবারকে একঘরে করার ফতোয়া জারি করেন।

পরে ১২ নভেম্বর আইনজীবী সোহেল হোসেন বাদী হয়ে মুন্সীগঞ্জের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৩ নম্বর আমলি আদালতে ৯ সমাজপতির বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন।

সমকাল

Leave a Reply