রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা নিতে আদেশ আনার পরামর্শ

মুন্সিগঞ্জে ও মানিকগঞ্জে প্রকাশ্যে জনসভায় বাংলাদেশ, বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের বিরুদ্ধে ঘৃণা, অবজ্ঞাসূচক, বিদ্বেষপূর্ণ ও উস্কানীমূলক বক্তব্য দিয়ে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে হেয় করে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টায় লিপ্ত বিএনপি’র চেয়ারপার্সন ও জাতীয় সংসদরে বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে মামলা দাখিল করা হয়েছে।

পুলিশ এজাহারকারীকে আদালত থেকে মামলাটি গ্রহণের আদেশ আনার পরামর্শ দিয়েছে।

বুধবার সকাল সোয়া দশটায় গণজাগরণ মঞ্চ, গাজীপুরের সমন্বয়ক জুলীয়াস চৌধুরী এ মামলার এজাহার দাখিল করেন।


পুলিশের মামলা না গ্রহণের বিষয়ে গাজীপুর বারের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আসাদুল্লাহ বাদল জানান, পুলিশ বিষযটি বুঝতে পারেনি। তারা এজাহার গ্রহণ করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন চাইতে পারতো।

তবে পুলিশ মামলা গ্রহণ না করায় বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় গাজীপুর আদালতে মামলাটি দাখিল করা হবে বলে জানান তিনি।

গণজাগরণ মঞ্চ, গাজীপুরের সমন্বয়ক জুলীয়াস চৌধুরী আজ ২০ মার্চ বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় জয়দেবপুর থানায় উপস্থিত হয়ে এই মামলার এজাহার দাখিল করেন।

মামলার আর্জিতে বলা হয়, আসামি বেগম খালেদা জিয়া গত ১৪ ও ১৫ মার্চ ২০১৩ খৃঃ উভয়দিন আনুমানিক বিকাল ৫:০০টায় যথাক্রমে মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং ও মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইরে প্রকাশ্যে জনসভায় বাংলাদেশ, বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের বিরুদ্ধে ঘৃণা, অবজ্ঞাসূচক, বিদ্বেষপূর্ণ, উস্কানীমূলক বক্তব্য দিয়ে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে হেয় করে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টায় লিপ্ত হয়েছেন। যা আইন অনুযায়ী রাষ্ট্রদ্রোহিতা। তার বক্তব্য দেশ বিদেশের সকল স্থানীয়, জাতীয়, আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম (সংবাদপত্র, অনলাইন নিউজ পোর্টাল, রেডিও, টেলিভিশন) প্রকাশ ও প্রচারিত হয়েছে। আসামি খালেদা জিয়া প্রকাশ্যে বলেছেন, জাতিসংঘ শান্তি মিশন থেকে পুলিশ বাহিনীকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য আবেদন করবেন। এটি একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসাবে বাংলাদেশের জন্য মারাত্মক হুমকি। তিনি রাষ্ট্রের ক্ষমতা পরিবর্তনের জন্য কঠিন আন্দোলনের মাধ্যমে আরো লাশ ও রক্ত ঝড়ানোর আহ্বান জানিয়ে প্রকাশ্যে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। এটি রাষ্ট্রের প্রতি অনানুগত্য ও শত্রুতার প্রকাশ্য রূপ। এছাড়া দেশপ্রেমিক তরুণ ও যুব সমাজের গড়ে উঠা শাহবাগ গণজাগরণ মঞ্চের সকলকে ঢালাওভাবে নাস্তিক বলে এবং ১৬ মার্চ ২০১৩ খৃঃ তারিখে ঢাকার নয়াপল্টনে বিএনপি দলীয় কার্যালয়ে বিকাল আনুমানিক ৫:৫০টা থেকে ৬:২০টা পর্যন্ত মাগরিবেব নামাজের আজান চলা অবস্থায় বিরতিহীনভাবে বক্তব্য প্রদান করে ( যা বাংলাদেশের অধিকাংশ টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার হয়েছে) জনগণের সাথে আমার ধর্মীয় অনুভুতিতে মারাত্মকভাবে আঘাত হেনেছেন।

ইউএনএসবিডিডটকম

One Response

Write a Comment»
  1. মামলা হামলা করে ,অত্যাচার নির্যাতন করে কেউ টিকে থাকতে পারেনি ।আওয়ামীলীগ ১৪ শরিকদল ও শাহাবাগী লীগার নতুন কুকুর ছানারা তোমরা টিকবা না ।ওয়েট এন্ড সি …………

Leave a Reply