হরতাল সমর্থনে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক অবরোধ, যানবাহন ভাংচুর

hefazat8হেফাজতে ইসলামের ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতালের সমর্থনে গুরুত্বপূর্ন ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার কুচিয়ামোড়া পয়েন্টে টায়ারে আগুন জালিয়ে মহসড়ক অবরোধ করে রেখেছে হরতাল সমর্থকরা। সোমবার সকাল ৬টা থেকে হেফাজতে ইসলামের কয়েক হাজার নেতা কর্মী মহাসড়কের ওই পয়েন্টে অবস্থান নেয়। এ সময় তারা টায়ারে আগুন জালিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে।

গুরুত্বপূর্ন ওই মহাসড়কে সকাল থেকেই যাত্রীবাহী বাসসহ দূর পাল্লার সকল ধরনের বড় যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। কুচিয়ামোড়া ধলেশ্বরী সেতুতে টায়ারে আগুন দিয়ে সকল ধরনের যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে হরতাল সমর্থকরা। এতে করে সকাল থেকে রাজধানী ঢাকার সঙ্গে মাওয়া হয়ে দক্ষিনবঙ্গের সড়ক যোগাযোগ সম্পূর্ন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।হাতে লাঠি সোটা নিয়ে দফায় দফায় মিছিল ও পিকেটিং অব্যাহত রেখেছে হেফাজতের কর্মীরা।

এদিকে সকাল ৮টার দিকে ধলেশ্বরী সেতুর সংলগ্ন সড়কে ৩টি মাছবাহী পিক-আপ ভ্যান ও ৫টি সিএনজি চালিত অটোরিকশা ভাংচুর করে হরতাল সমর্থকরা। এ সময় তারা ইলিশ পরিবহনের একটি বাসেও হামলা চালায়।
hefazat8
পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে হেফাজতের নেতা কর্মীদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে ব্যর্থ হয়েছেন। বেলা বাড়ার সাথে সাথে হরতাল সমর্থকদেও সংখ্যা বাড়ছে মহাসড়কে।

ইউএনএসবিডিডটকম
===================

মুন্সীগঞ্জে ৮ গাড়ি ভাংচুরে হেফাজত

ফজর নামাজের পর মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক দখলে নেয় হেফাজতে ইসলাম। এ সময় হরতালের সমর্থনে জেলার সিরাজদিখান উপজেলার কুচিয়ামোড়া থেকে নিমতলা এলাকা পর্যন্ত কয়েক কিলোমিটার এলাকা জুড়ে চলতে থাকে খন্ড খন্ড মিছিল। বিক্ষোভের বহি:প্রকাশ ঘটাতে ভোর থেকে বেলা সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে ৮ টি গাড়ি ভাঙচুর করেছে হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা। সিরাজদিখান থানার ওসি মাহবুবুর রহমান গাড়ি ভাঙচুর করার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে কুচিয়ামোড়া এলাকায় থেকে নিমতলা পর্যন্ত অন্তত ৫হাজার নেতাকর্মী অবস্থান নেয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন ভোরে মাছ বোঝাই ২ টি পিকআপ ভ্যান গাড়ি ভাঙচুর করার মধ্য দিয়ে হেফাজতে ইসলাম মহাসড়কে অবস্থান নেয়।

এরপর খন্ড খন্ড মিছিল করে তারা। সড়কে বসে পড়ে অবরোধ গড়ে তোলে। বেলা ১০ টার দিকে সিএনজি চালিত পৃথক ৫ টি অটোবাইক ও আরো মাছভর্তি আরো ১ টি পিকআপ ভ্যান ভাঙচুর করে হেফাজতের কর্মীরা।

জাস্ট নিউজ
==================

৫ ঘণ্টা ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক অবরোধ

সকাল-সন্ধ্যা হরতাল সফল করতে পাঁচ ঘণ্টা ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ, সমাবেশ ও পিকেটিং করেছে হেফাজত ইসলামের নেতাকর্মীরা।

সোমবার সকাল ১০টা থেকে মহাসড়ক অবরোধ করে অবস্থান নেয় তারা। বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত সড়কে অবস্থান নিয়ে থাকে তারা। এতে দক্ষিণ অঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যায়।

এ সময় হরতাল সফল করতে মুন্সীগঞ্জের মধুপুর মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ও হেফাজতে ইসলামের মুন্সীগঞ্জ জেলার আহ্বায়ক আব্দুল হামিদ মধুপুরী পীর সাহেবের নেতৃত্বে কেরানীগঞ্জ চর গলগলিয়া ও মুন্সীগঞ্জের কুচিয়ামারা ফেরিঘাট এলাকায় হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের ধলেশ্বরী সেতুর উভয় পাশে টায়ার জ্বালিয়ে সেতু অবরোধ করে রাখে।

এ সময় তারা নাস্তিক ব্লগারদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। ফলে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দক্ষিণ অঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় চরম দুর্ভোগের পড়েন শত শত যাত্রী।

অবরোধ ও সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, সৈয়দপুর মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা বশির আহম্মেদ, হেফাজতে ইসলামের সিরাজদিখান থানার সভাপতি মাওলানা ওবায়দুল্লাহ কাশেমী, মাওলানা মুফতি হাসান ও মাওলানা জাকিরসহ হাজারো মাদ্রাসা ছাত্র ও এলাকাবাসী।

তবে অবরোধ চলাকালীন পুলিশকে দুরে দাঁড়িয়ে থেকে নীরব ভূমিকা পালন করতে দেখা গেছে।

এ বিষয়ে সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মাহবুবুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, তারা প্রথমে কিছুটা বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করেন।

তবে হেফাজতের নেতাকর্মীরা সংখ্যায় অনেক বেশি হওয়ায় বাঁধা প্রদান করা সম্ভব হয়নি বলে জানান ওসি।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply