শ্রীনগরে যুবলীগ নেতার রহস্যজনক মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের শফিকুর রহমান বাহাদুর (৩০) নামের এক যুবলীগ নেতার রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। তিনি স্থানীয় বারইখালি ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে। রোববার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে রাজধানীর গুলশানস্থ ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

তবে যুবলীগ নেতা বাহাদুরকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে।

এদিকে তার লাশ দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে বিকেলে শ্রীনগরের শ্রীধরপুর গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়েছে।

জানা গেছে, কাতার প্রবাসী আবদুর রহমানের ছেলে শফিকুর রহমান বাহাদুর শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে প্রতিবেশী গ্রামের জাফর নামের এক যুবকের সঙ্গে ঢাকা থেকে মোটরসাইকেল করে গ্রামের বাড়ি যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে কেরানীগঞ্জের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় রক্তাক্ত জখম হলে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় ঢাকার মিডফোর্ড হাসপাতালে নেওয়া হয়।

সূত্র জানায়, হাসপাতাল থেকে বিষয়টি তার পরিবারের সদস্যরা জানতে পেরে উন্নত চিকিৎসার জন্য গুলশান ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করলে রোববার সকালে তার মৃত্যু হয়।

শফিকুর রহমান বাহাদুরের বোন জামাই মঞ্জুরুল আলম অভিযোগ করেন, তার শ্যালককে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তার মতে, দুর্ঘটনায় আহত হয়েছিল বলা হলেও চালক প্রতিবেশী জাফরের কিছুই হয়নি এবং মোটরসাইকেলেরও কোনো ক্ষতি হয়নি। দুর্ঘটনায় শফিকুরের গুরুতর আহত হওয়া তাই রহস্যজনক।

পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করে বলেছেন, গ্রামের স্থানীয় একটি সন্ত্রাসী গ্রুপের সঙ্গে শফিকুর রহমানের বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে কয়েকদিন আগে শফিকুরের বৃদ্ধ পিতা আবদুর রহমানকে হত্যার জন্য সন্ত্রাসীরা গুলি করলেও তিনি ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান।

এ প্রসঙ্গে শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিমউদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, ঘটনাস্থল দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার অন্তর্ভূক্ত। তবে যুবলীগের এক নেতার রহস্যজনক মৃত্যুর কথা তিনি শুনেছেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply