পুলিশের এএসআই গণধোলাইয়ের শিকার!

মাদক বেচাকেনা, সেবন ও মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সখ্য ও এক যুবককে মাদক দিয়ে আটক করে আনার চেষ্টাকালে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন এএসআই মনিরুজ্জামান। এ সময় সদর থানার ওই বিতর্কিত এএসআই পুকুরে ঝাঁপ দিয়ে প্রাণ রক্ষা করেন। পরে সদর থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে পুকুর থেকে উদ্ধার করে।

সোমবার রাত ৯টার দিকে শহরের নতুনগাঁও এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর থেকে শহরের মানিকপুর-নতুনগাঁও এলাকা পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে। নতুনগাঁও গ্রামের ভুক্তভোগী জাহাঙ্গীর-মহসিনসহ পরিবারের সবাই গ্রেপ্তারের ভয়ে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে।


মোবাইল ফোনে নতুনগাঁও গ্রামের ভুক্তভোগী জাহাঙ্গীর-মহসিন দু’ভাই জানান, সোমবার রাত ৯টার দিকে সদর থানার এএসআই মনিরুজ্জামান নতুনগাঁও বাড়িতে এসে তার পকেটে ইয়াবা দিয়ে আটক করে। এ সময় ঘরের আলমারি ভেঙ্গে টাকা-পয়সা তছরুপ করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। এ খবর পেয়ে এলাকার নারী-পুরুষরা ডাকাত ডাকাত চিৎকার করে লাঠিসোটা নিয়ে বেরিয়ে আসে। এ সময় মনিরুজ্জামান ঝাঁপ দিয়ে পুকুরে পড়ে যায় ও তার সঙ্গে থাকা অপর দুই পুলিশ কর্মকর্তা পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. ইয়ারদৌস হাসান জানান, মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করতে গিয়ে মনিরুজ্জামান পুকুরে ঝাঁপ দেয়।

জাস্ট নিউজ

Leave a Reply