সিরাজদিখানে ১০ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে মাত্র ৭০ হাজার টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় ১০ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিদ্যুৎসংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে পল্লীবিদ্যুৎ অফিস। দীর্ঘদিন বিচ্ছিন্ন থাকার পর বকেয়া বিল পরিশোধ করে দেয়ার পর গত ২দিনে ৬টি বিদ্যালয়ের বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে।

রশুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রোকসানা বেগম কেয়া বলেন, আমি বেশ কয়েক মাস নিজের বেতনের টাকা দিয়ে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করেছি।

এখনও ৮ মাসের বিল পরিশোধের বাকি তাই বিদ্যুৎ অফিস বিদ্যুতের লাইন বিচ্ছিন্ন করেছে। উপজেলার সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা শফিকুল হাসান জানান, বছরে দু’বার বাজেট বরাদ্দ আসে। কিন্তু বরাদ্দ না পাওয়ার কারণে টাকা পরিশোধ হয়নি। আমরা বরাদ্দ না পেলে কোন স্কুলে টাকা পাঠাতে পারবো না। সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল কাশেম বলেন, বিষটি আমি বৃহস্পতিবার দুপুরে জেনেছি।


যদিও এ বিষয়টি আমার অধীনে নয়, তারপরও এ বিষয়ে শিক্ষা কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে। সিরাজদিখান পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির জোনাল কর্মকর্তা ব্যবস্থাপক (ডিজিএম) প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান বলেন, কোন কোন স্কুলের ২০০৮ সাল থেকে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা হয়নি। উপজেলার ১০টি বিদ্যালয়ে প্রায় ৭০ হাজার টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। ৬টি বিদ্যালয় বিল পরিশোধ করায় সংযোগ সচল করে দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় আমাদের বেতন-ভাতা বন্ধ হওয়ার উপক্রম। দু’বার চিঠি দিয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে বিল পরিশোধের তাগিদ দিয়েছি। কিন্তু কোন কাজ হয়নি।

ঢাকা নিউজ এজেন্সি

Leave a Reply