গজারিয়ার রফিক হত্যা মামলায় ১১ জনের যাবজ্জীবন

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম হত্যা মামলায় ১১ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন ঢাকার একটি ট্রাইব্যুনাল।

আসামিরা হলেন- রিপন সরকার, আনার, আলী আহমদ, বাবলু মিয়া, নবী সরকার, সুরুজ মিয়া ওরফে কালা সুরুজ, ইউনুস মৃধা, আবু সালাম, ফয়সাল মিয়া, পান্না মিয়া ও দুলাল মিয়া।

আসামিদের যাবজ্জীবন দণ্ডের অতিরিক্ত ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে প্রত্যেককে আরও ১ বছর করে কারাদণ্ডের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও আল আমিন, জামাল, শাহজালাল ও কামালকে অস্ত্র দিয়ে জখমের অভিযোগে আসামি আলী আহমদ, সুরুজ মিয়া, ইউনুস মৃধা, আবু সালামকে আরও ৩ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।


ঢাকার চার নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক দেওয়ান মো. সফিউল্লাহ বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা করেন।

এছাড়াও অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় অপর ৪২ আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।

সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি এসএম রফিকুল ইসলাম জানান, আসামিরা জামিনে ছিলেন। কিন্তু গত ১৫ জুলাই মামলাটির যুক্তিতর্কের শুনানির দিন থেকে তারা পলাতক আছেন।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় নিহতের ভাই শফিকুল ইসলাম অভিযোগ করেন, আসামি ও বিচারকের বাড়ি একই এলাকায় হওয়ায় তারা ন্যায় বিচার পাননি। তা না হলে অধিকাংশ আসামির মৃত্যুদণ্ড হতে পারতো।

রায়ের বিবরণ থেকে জানা যায়, ২০১১ সালের ১৩ অক্টোবর নিহত রফিকুল ইসলামসহ আহতরা একটি মামলায় হাজিরা দিয়ে মুন্সীগঞ্জ থেকে গ্রামের বাড়ি চরবলাকী যাওয়ার পথে ইয়ার আলীর বাড়ীর সামনে আসামিরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পূর্বশত্রুতার জের দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আক্রমন করেন। এতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় রফিকের।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Leave a Reply