অচেনা সম্পর্ক গল্প নিয়ে লেখকের কিছু কথা

ব.ম শামীম: গত ৯ই আগষ্ট মুন্সীগঞ্জ ডট কম ও বাংলাপোষ্ট অনলাইনে প্রকাশিত আচেনা সম্পর্ক গল্পটি প্রকাশিত হওয়ার পর হতেই অনেক প্রবাসীরা উৎকন্ঠা নিয়ে ফোন করেছে আমাকে । তারা আমার নিকট জানতে চেয়েছে গল্পের মূল চরিত্র সাথি নামের মেয়েটি কি আসলেই আন্তহত্যা করেছে কিনা? অনেক বাবা ফোন করে করুন সুরে বলেছে ভাই আমিও বিদেশ থাকি গল্পের নায়িকা সাথির বাবার মতো আমার মেয়েরাও স্কুল কলেজে লেখা পড়া করে। তাই চির উৎকন্ঠা নিয়ে বিদেশ থাকতে হয় আমাকে। এর থেকে বাচাঁর কি কোন উপায় নেই! অনেক বোনের ভাইয়েরা ফোন করে তাদের বোনদের ব্যাপারে উৎকন্ঠা প্রকাশ করেছে।

এমন কি এ ধরনে একটি লিখার জন্য আমায় ধন্যবাদ জানিয়ে পুরুস্কিত করতে চেয়েছে অনেকে। আমার হৃদয়ের মধ্যে সবচেয়ে যে ফোনটি বেশি রেখাপাত করেছে সে হচ্ছে মুন্সীগঞ্জের মুন্সীরহাটের শাহজাহান। সৌদি প্রবাসী শাহজাহান আমায় বলেছে ভাই এই ইভটিজিংয়ের বিরুদ্ধে যত সহযোগীতা প্রয়োজন হয় আমরা করবো। আমরা আপনার সাথে আছি সব কিছুর বিণিময়ে হলেও আমরা ইভটিজিংয়ের প্রতিকার চাই। শাহজাহান সহ অন্যান্য বাবা ভাইদের কথা শুনে নিজেকে কেন জানি খুব অসহায় এবং ছোট মনে হয়েছে আমার। যারা এই দেশ গড়ার জন্য পরিবার পরিজন ছেড়ে বিদেশে দেশের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য সংগ্রাম করছেন তাদের আকূতি আর উৎকন্ঠা তারপর হতে সব সময় আমাকে তারা করে ফিরেছে। আমার মতো ক্ষুদে একজন লেখকের পক্ষে এ সমাজের ইভটিজিং এর মতো সমস্যার সমাধানের জন্য কিবা করতে পারি?

তারপরও আমার কানে শাহজাহানদের মতো আগনিত কন্ঠস্বরগুলো বাজেঁ আমরা আছি আপনার সাথে। আসুন সবাই মুষ্টিবদ্ধ হয়ে একসাথে বলি ইভটিজিং আমরা আর চাইনা। আমরা সবাই উপলদ্ধি করতে শিখি স্কুল কলেজ গামী ছাত্রীগুলো আমাদের কারো মেয়ে কারোবা বোন। আর আমাদের এই মেয়ে এই বোনগুলোকে শিক্ষা দিক্ষায় মানুষের মতো মানুষ করার জন্য কত বাবা কত ভাই তাদের বুকের রক্ত পানি করে পরিবার পরিজন ছেড়ে প্রবাসী জীবন যাপন করছে। আর আমাদের দেশের মেয়েগুলো ছেলেদের তুলনায় এখোন কোন অংশ পিছিয়ে নেই। ওরা কর্মজীবনে দেশের অর্থনৈতিক উন্নায়নে পুরুষের পাশাপাশী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তাই আগামী দিনের কান্ডারীদের যারা বড় হয়ে দেশ ও জাতিকে কিছু দিতে চায় তাদের চলাচলের রাস্তাটি নির্বিঘœ করার দায়িত্ব আমাদের। আমরা চাইনা ইভটিজিং নামের মহাপ্রলয়ে আর ক্ষত বিক্ষত হোক কোন বাবার সপ্ন চোখের প্লাবনে ভেসে যাক কোন মায়ের আশ-ভরসা।


শাহজাহানের মতো ভাই স্বপন তালুকদারের মতো বাবাদের আসস্ত করে বলতে চাই এই সমাজের যত অন্যায় অবিচার আর অত্যচারের বিরুদ্ধে আমার লিখা অব্যাহত থাকবে। বিনিময়ে আপনাদের কাছ হতে আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নেই। আমার মতো ক্ষুদে লেখকের লেখা আপনাদের ভালো লেগেছে এটা আমার জন্য অনেক আনন্দের। আমার লিখনির মাধ্যমে এ সমাজের কোন একটি অন্ধকার আচ্ছন্ন পথ যদি একটু আলোর দিশা খুজেঁ পায় তহলে সেটাই হবে আমার জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া।

গল্পটি পড়তে এখানে… অচেনা সম্পর্ক – ব.ম শামীম

Leave a Reply