সঙ্কটের সমাধান রাজনৈতিক ভাবেই করতে হবে

ok1যে কোনো রাজনৈতিক সঙ্কটের সমাধান রাজনৈতিক ভাবেই করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বুধবার সকাল ১১টায় ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়ক ও মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুর সেতুর এপ্রোচ সড়ক পরিদর্শনকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমানে যে সঙ্কট চলছে তা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরেই। গণতান্ত্রিক পন্থায় নির্বাচনের বিকল্প কিছু নেই। সব রাজনৈতিক দলকে এ সীমারেখার মধ্যে চিন্তা ভাবনা করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘গণতান্ত্রিতক রাজনীতিতে নির্বাচনের বিকল্প নেই। আর নির্বাচনের বিকল্প হচ্ছে সংঘাত ও রক্তপাত, যা দেশের মানুষ চায় না। তাই নির্বাচনের মাধ্যমে গণতান্ত্রিতক সমাধান খুঁজতে হবে।’

যোগাযোগমন্ত্রী সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘রাজনৈতিক দলের নেতারা যেভাবে বাকযুদ্ধ করছেন, আর এভাবে বাকযুদ্ধ অব্যাহত থাকলে তাহলে অন্য কেউ রাজনৈতিক মঞ্চ দখল করতে পারে এমন কথা বলা হয়েছে। এতে তৃতীয় কোনো শক্তিকে বোঝানো হয়নি।’
ok1
সড়ক উন্নয়ন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কের বিভিন্ন পয়েন্ট পরিদর্শন করে দেখা গেছে মুক্তারপুর থেকে পঞ্চবটি পর্যন্ত সড়ক ভাল থাকলেও পোস্তগোলা, পাগলা হয়ে ফতুল্লা পর্যন্ত সড়কের কয়েকটি স্থান বেহাল অবস্থায় রয়েছে। তাই এগুলো শিগগিরই মেরামত করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘যোগাযোগমন্ত্রী সড়ক পরিদর্শনে আসার আগে একটি মেকাপ প্রলেপ দিয়ে মেরামত করা হয়। পরে এক পসলা বৃষ্টিতে তা আবার আগের রূপে চলে যায়। লোক দেখানে কাজে জনগণ বিরক্ত হয়। তাই সংশ্লিষ্টদের বলা হয়েছে, মেরামতের নামে মেকাপের প্রলেপ দেওয়ার ফাঁকিবাজি বন্ধ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমার মেয়াদ রয়েছে আড়াই মাস। এ সময়ে ছুটি কাটাবো না ও বিদেশও যাবো না। এ সময়টুকু সড়ক যোগযোগের উন্নয়নের কাজে ব্যয় করবো বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’


তিনি বলেন, ‘একজন মন্ত্রীর সাফল্য তুলে ধরতে ২০ মাস যথেষ্ট সময় নয়। তারপরেও জনগণের প্রত্যাশা পূরণের জন্য হরতালের মধ্যেও আমার কার্যক্রম থেমে নেই।’

এ সময় যোগযোগমন্ত্রীর সঙ্গে সড়ক ও জনপথের প্রধান প্রকৌশলী কবির আহমেদ, তত্ত্বাবধায় প্রকৌশলী সাহাবুদ্দিন খান, অতিরিক্ত প্রকৌশলী হাবিবুল হক, মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান বাদল, পুলিশ সুপার হাবিবুর রহমান, সওজের ঢাকার নির্বাহি প্রকৌশলী আসলাম শেখ, মুন্সীগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী নুরুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
=============

“২০ মাস ধরে রাস্তায় আছি, রাস্তায়ই থাকবো”

যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ২০ মাস ধরে রাস্তায় আছি, রাস্তায়ই থাকবো। একজন মন্ত্রীর সাফল্য তুলে ধরতে ২০ মাস যথেষ্ট সময় নয়। তারপরেও জনগণের প্রত্যাশা পূরণের জন্য হরতালের মধ্যেও আমার কার্যক্রম থেমে নেই। আমার মেয়াদ রয়েছে আড়াই মাস। এ সময়ে ছুটি কাটাবো না, বিদেশেও যাবো না। এ সময়টুকু সড়ক যোগযোগের উন্নয়নের কাজে ব্যয় করবো বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, কোন রাজনৈতিক বক্তব্য নয়, কাজ করতে চাই।

বুধবার দুপুর ১২ টার দিকে মুন্সীগঞ্জ সদরের মুক্তারপুর এলাকায় ষষ্ঠ বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর এপ্রোচ সড়কের বেহাল চিত্র পরিদর্শনকালে যোগাযোগ মন্ত্রী এ সব কথা বলেন। এ সময় যোগযোগমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, সড়ক ও জনপথের প্রধান প্রকৌশলী কবির আহমেদ, তত্ত্বাবধায় প্রকৌশলী সাহাবুদ্দিন খান, অতিরিক্ত প্রকৌশলী হাবিবুল হক, মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল হাসান বাদল, পুলিশ সুপার হাবিবুর রহমান, সওজের ঢাকার নির্বাহী প্রকৌশলী আসলাম শেখ, মুন্সীগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী নুরুল হক প্রমুখ।

পরে মন্ত্রী ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কের ষষ্ঠ বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর পাদদেশের এপ্রোচ সড়কটি আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সংস্কার কাজ শেষ করার নির্দেশ দেন।

ঢাকা নিউজ এজেন্সি
============

Leave a Reply