মুন্সীগঞ্জ জেলার চারটি আসন পুনর্বহালের দাবি

আওলাদ হোসেন খান শিবলী
আগামী সংসদ নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে, মুন্সীগঞ্জবাসীর মধ্যে ততই নির্বাচনী আবহাওয়া, উত্তেজনা সৃষ্টি হচ্ছে। এর পাশাপাশি মুন্সীগঞ্জ জেলার চারটি আসন পুনর্বহালের দাবিতে আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ রাজনৈতিক দলের নেতা, পেশাজীবী ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন থেকে শুরু করে আপামর জনসাধারণ জোর দাবি জানিয়ে মতামত ব্যক্ত করেছেন।গত নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জের ৪টি আসন থেকে ১টি আসন কমে ৩টি করা হয়। আর ১টি আসন কমে যাওয়ায় বড় দুই দল বিএনপি ও আওয়ামী লীগের নমিনেশনেও বঞ্চিত হয় নেতারা। আর এতে করে প্রার্থী হওয়া নিয়ে বড় দুই দলের প্রার্থীদের মধ্যে ব্যক্তিগত ও দলীয় বিরোধ প্রকট আকার ধারণ করে। জেলার ৬টি উপজেলা নিয়ে ১৯৭৩ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে ২০০১ সালের নির্বাচন পর্যন্ত জেলার চারটি সংসদীয় আসন ছিল।


এর আগে ১৯৭০ সালের প্রাদেশিক নির্বাচনেও জেলার চারটি আসনে নির্বাচন হয়। ২০০৮ সালের নির্বাচনে আসনের সীমানা পুনর্বিন্যাসে জনসংখ্যারভিত্তিতে আসন বণ্টন করায় মুন্সীগঞ্জ জেলার সংসদীয় সীমানা বদলে যায়। ২টি উপজেলা নিয়ে একটি সংসদীয় আসন হয়। সীমানা পরিবর্তন হওয়ায় একদিকে যেমন সংসদ সদস্যদের উন্নয়ন কর্মকান্ড তদারকিতে বিঘ্ন ঘটছে, প্রত্যেক উপজেলায় উন্নয়ন বরাদ্দের সুষম বণ্টন ব্যাহত হচ্ছে। বর্তমানে জেলার ভোটার, জনসংখ্যা অনুপাতে ও এলাকার উন্নয়ন বরাদ্দ বেশি পাওয়ার জন্য চারটি আসন একান্তই প্রয়োজন। দলমত নির্বিশেষে জেলার উন্নয়নে এবং সংসদ সদস্যের সুষ্ঠু দলীয় কর্মকান্ড চালানোর স্বার্থে চারটি আসন পুনর্বহাল করা জন্য মুন্সীগঞ্জবাসীর দাবি দিন দিন জরদার হচ্ছে ।

বাংলাদেশ খবর

Leave a Reply