যুবদল নেতার স্কুল পড়ুয়া মেয়ের বাল্য বিয়ে পন্ড

rapeমুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মশদগাঁও গ্রামে বুধবার বিকেলে যুবদল নেতার স্কুল পড়ুয়া মেয়ের বাল্য বিয়ে ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে। লৌহজং উপজেলার ইউএনও অহিদুল ইসলামের নির্দেশে ও স্থানীয় কাজী অফিসের কাজী মাওলানা সিরাজুল ইসলামের দৃঢ়তায় বুধবার বিকেল ৪ টার দিকে বিয়ের আয়োজন ভেস্তে যায়।

কনে বকুল আক্তার (১৪) লৌহজং-তেউটিয়া ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি সাহাবুদ্দিন মাদবরের মেয়ে।

বকুল লৌহজং পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেনীতে অধ্যয়নরত রয়েছে। এ বিয়ের বর ছিলেন জামাল শেখ (৩১)। তিনি শরীয়তপুরের পালেরচর গ্রামের মো: রাজ্জাক শেখের ছেলে।

মোবাইল ফোনে লৌহজং উপজেলার ইউএনও অহিদুল ইসলাম বাল্য বিয়ে বন্ধ করে দেওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন- দুপুরের দিকে বর পক্ষের লোকজন কনের বাড়িতে আসেন। পোলাও-গরুর মাংশ ও মুরগীর রোষ্ট-রেজালা দিয়ে বরযাত্রীদের আপ্যায়নও করা হয়। আপ্যায়ন পর্ব শেষে বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে কনে ছাড়াই বিয়ে বাড়ি থেকে বরসহ বিদায় নেয় বরপক্ষ।

লৌহজং-তেউটিয়া ইউনিয়নের কাজী মাওলানা সিরাজুল ইসলাম বলেন- জন্ম নিবন্ধন সনদে স্কুল ছাত্রীর বিয়ের বয়স ১৮ বছরের নীচে হওয়ায় বিয়েতে বর-কনের কাবিন পড়ানো হয়নি। এতে বরপক্ষকে খালি হাতে নিজ বাড়িতে ফিরে যেতে হয়েছে।

যমুনা নিউজ

Leave a Reply