মুন্সীগঞ্জে ৩ আসনে ২৩ প্রার্থী

23 candidateমোজাম্মেল হোসেন সজল: রাজধানীর উপকন্ঠ মুন্সীগঞ্জের ৩টি সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ২৩ প্রার্থী মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। এদের মধ্য থেকেই ৩ জন ৩টি সংসদীয় আসনে নমিনেশন পাবেন। এর মধ্যে নতুন প্রার্থী রয়েছেন ১৮ জন।

যদিও এদের মধ্যে থেকে একমাত্র আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-দপ্তর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস ছাড়া নমিনেশন পাওয়ার সম্ভাবনা নেই কারো। তারপরও তারা মিডিয়ায় নাম ও পরিচিতি লাভের জন্য নমিনেশন ফরম ক্রয় করেছেন।

এসব সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে নানা হিসাব নিকাষ চলছে। বিশেষ করে মুন্সীগঞ্জ সদর-৩ আসনে কে পাচ্ছেন দলীয় টিকিট-এ নিয়ে দলীয় নেতাকর্মী-সমর্থক ও সচেতন মহলের মধ্যে ব্যাপক কৌতূহল লক্ষ্য করা গেছে।


বিশেষ করে ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসন থেকে বার বার নির্বাচন করে হেরে যাওয়া প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিনের নমিনেশন ফসকে যায়। ওই নির্বাচনে নতুন প্রার্থী হিসেবে এম ইদ্রিস আলী প্রথম দফায় দলীয় টিকিট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

যদিও ওই নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের অভিভাবক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন পলাতক ছিলেন। এরপর আওয়ামী লীগ কয়েক গ্র“পে বিভক্ত হয়ে পড়ে। আর এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা মহিউদ্দিনের ছোটভাই সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামান আনিসকে পুঁজি করে মৃণাল কান্তি দাস মুন্সীগঞ্জের রাজনীতিতে পোস্টার, ফেস্টুন, কম্বল বিতরণ ও সর্বশেষ নির্বাচনের মাধ্যমে নিজেকে প্রার্থী ঘোষণা দিয়েছেন।
23 candidate
তবে সচেতন মহলের মতে, মোহাম্মদ মহিউদ্দিন-আনিসুজ্জামানসহ তাদের পরিবার নির্বাচনের শেষ মুহূর্তে নাটকীয়ভাবে মিলে গেলে মৃণাল কান্তি দাসের সব আশাই ভস্মীভূত হয়ে যেতে পারে বলে নির্বাচন বিশ্লেষকরা মনে করছেন। কারণ এখন যে সব দলীয় নেতাকর্মী-সমর্থক মৃণাল কান্তি দাসকে সমর্থন করছেন তারা সবাই আনিসুজ্জামান অনুসারী।

এদিকে মুন্সীগঞ্জ-১ (শ্রীনগর-সিরাজদিখান) আসনে দলীয় টিকিট আবারো পাচ্ছেন বর্তমান সংসদ সদস্য সুকুমার রঞ্জন ঘোষ- এটা প্রায় নিশ্চিত। গত পাঁচ বছরের তিনি এলাকায় ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজও করেছেন বলে এলাকায় জোর প্রচার চলছে।

এছাড়া মুন্সীগঞ্জ-২ (টঙ্গীবাড়ি-লৌহজং) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলীও নমিনেশন পেতে যাচ্ছেন। তবে দলীয় কোন্দল তাকে কাবু করে ফেলছে।

মুন্সীগঞ্জ -৩ (মুন্সীগঞ্জ সদর-গজারিয়া) আসনে নমিনেশনের তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন ২ জন। এদের মধ্যে ১৯৭৮ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত বিএনপির প্রার্থী আবদুল হাইয়ের সঙ্গে পরাজিত জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, বঙ্গবন্ধুর চিফ সিকিউরিট গার্ড মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ও আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-দপ্তর সম্পাদক ও মুন্সীগঞ্জ সরকারি হরগঙ্গা কলেজের সাবেক ভিপি অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস রয়েছেন মনোনয়ন তালিকায় শীর্ষে।

তবে সাবেক এ ছাত্র নেতার পক্ষে মুন্সীগঞ্জে আওয়ামী লীগের রয়েছে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা।

সূত্র মতে, মুন্সীগঞ্জ-১ আসনে ৮ জন, মুন্সীগঞ্জ-২ আসনে ৯ জন এবং মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনে ৬ জন মনোনয়নপত্র কিনেছেন। মুন্সীগঞ্জ-১ আসন থেকে বর্তমান সংসদ সদস্য শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুকুমার রঞ্জন ঘোষ, নতুন প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. বদিউজ্জামান ভুঁইয়া ডাবলু, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক গোলাম সারোয়ার কবীর, গিয়াস উদ্দিন গিয়াস, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা মো. জাকির হোসেন, সিরাজদিখান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ, ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কাশেমসহ মোট ৮ জন দলীয় মনোনয়ন পেতে মনোনয়নপত্র কিনেছেন।

মুন্সীগঞ্জ-২ আসন থেকে বর্তমান সংসদ সদস্য হুইপ সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ লুৎফর রহমান, জাতীয় পার্টির সাবেক এমপি ইকবাল হোসেন, নতুন প্রার্থী হিসেবে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ঢালী মোয়াজ্জেম হোসেন, টঙ্গীবাড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার কাজী আব্দুল ওয়াহিদ, লৌহজং উপজেলা চেয়ারম্যান ওসমান গণি তালুকদার, লৌহজং উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রানু আক্তার, লৌহজং উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাকির হোসেন বেপারী, লৌহজং উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মেহেদী হাসানসহ মোট ৯ জন।

মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনে দলের মনোনয়ন ফরম কিনেছেন বর্তমান সংসদ সদস্য, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এম ইদ্রিস আলী, মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, নতুন মুখ হিসেবে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-দপ্তর সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক সংরক্ষিত মহিলা এমপি ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা, গজারিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মান্নান সরকার, ব্যাংকার এনামুল হক।

এমটিনিউজ২৪

Leave a Reply