শ্রীনগরে বিদ্রোহী প্রার্থীর ওপর আ.লীগের হামলা

srinagar hamlaমুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা নির্বাচনের প্রচারণার সময় বিদ্রোহী প্রার্থী কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক জাকির হোসেনের গাড়ি বহরে হামলা চালিয়েছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। চাপাতির কোপে গুরুতর আহত জাকির হোসেনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার তিন দোকান নামক স্থানে এই হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় জাকির হোসেনের ৪টি গাড়ি ভাংচুর এবং ১০-১২ জন সমর্থককে মরধর করা হয়। তাদের শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
srinagar hamla
এদিকে জাকির হোসেনের ওপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তার শত শত নারী-পুরুষ সমর্থক ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের ষোলঘর বাসস্ট্যান্ড থেকে হাসাড়া পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে অবস্থান নেয়। এ সময় তারা উত্তেজিত হয়ে ১৫-২০টি গাড়ি ভাংচুর করে ও প্রায় ২ ঘণ্টা মহাসড়কটি অবরোধ করে রাখে। এতে রাস্তার দুপাশে প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়।

পরে দুপুর দেড়টার দিকে পুলিশ ও র‌্যাব এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। জাকির হোসেনের ভাই বাতেন অভিযোগ করেন, জাকির হোসেন উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে অংশ নিয়ে শুক্রবার প্রচারণার জন্য রাঢ়ীখাল ইউনিয়েনের তিন দোকান এলাকায় যান। সেখানে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তাদের ওপর হামলা চালায়।

বাংলাপোষ্ট
=====

শ্রীনগরে বিদ্রোহী প্রার্থীর ওপর হামলা : মহাসড়ক অবরোধ

মো. আরিফ হোসেন: মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা নির্বাচনের প্রচারণার সময় বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ কমিটির সহ-সম্পাদক জাকির হোসেনের গাড়ি বহরে হামলা করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা। চাপাতির কোপে গুরুতর আহত জাকির হোসেনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে উপজেলার তিন দোকান নামক স্থানে এঘটনা ঘটে। এসময় জাকির হোসেনের ৪টি গাড়ি ভাঙচুর ও ১০-১২ সমর্থককে মরধর করা হয়। তাদেরকে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে জাকির হোসেনের উপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদে শুক্রবার বেলা সাড়ে এগারটার দিকে তার শত শত নারী-পুরুষ সমর্থক ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের ষোলঘর বাস স্ট্যান্ড থেকে হাসাড়া পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে অবস্থান নেয়। এসময় তারা উত্তেজিত হয়ে ১৫-২০ টি গাড়ি ভাংচুর করে ও প্রায় দুই ঘন্টা মহা সড়কটি অবরোধ করে রাখে। এতে রাস্তার দুপাশে প্রায় দশ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে জানযটের সৃষ্টি হয়। পরে দুপুর দেড়টার দিকে পুলিশ ও র‌্যাব এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। জাকির হোসেনর ভাই বাতেন অভিযোগ করেন, জাকির হোসেন উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে অংশ নিয়ে শুক্রবার প্রচারণার জন্য রাঢ়ীখাল ইউনিয়েনের তিন দোকান এলাকায় যান। সেখানে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা তাদের ওপর হামলা করে।

========

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে আ.লীগ প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় বিদ্রোহী প্রার্থী আহত

আজ শুক্রবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মীদের হামলায় বিদ্রোহী প্রার্থী জাকির হোসেন (৪৫) ও তার অনুজ আব্দুল বাতেন (৩৫) আহত হয়েছেন। দুই সহোদরকে রক্তাক্ত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই সময় তাদের ব্যবহৃত গাড়িটি ভাঙচুর হয়েছে। এর প্রতিবাদে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের কেউটখালীতে সমর্থকরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে মহাসড়কে ৬টি গাড়ি ভাঙচুর করে। এতে প্রায় ২০ মিনিট যান চলাচল বিঘ্নিত হয়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তিন দোকান এলাকায় বিদ্রোহী প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুবলীগসহ সম্পাদক জাকির হোসেন প্রচারণা চালাতে গেলে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সেলিম আহমেদ ভূঁইয়ার লোকজন হামলা চালায়। এই সময় ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করা হয়। এতে দুই ভাই আহতসহ তাদের ব্যবহৃত গাড়িটি ভাঙচুর করে।

খবর পেয়ে জাকির হোসেনের বিক্ষুব্ধ সমর্থকরা ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের ষোলঘর ইউপির কেউটখালীতে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করে। এই সময় ৬টি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। এতে বেলা সাড়ে ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করে। এই সময় পুলিশের বাধা দিলে বিক্ষোভকারীরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। এক পর্যায়ে পুলিশও লাঠিচার্জ করে। এই সময় সংঘর্ষ বেধে যায়। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে বেলা ১টা থেকে যান চলাচল স্বাভবিক হয়। তবে এই ঘটনায় আহতের খবর পাওয়া যায়নি। শ্রীনগর থানার ওসি শেখ মাহবুর রহমান জানান, এখনো কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। ঢাকা মেডিক্যাল সূত্রে জানা গেছে, জাকির হোসেনের অবস্থা আশঙ্কামুক্ত। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে।

কালের কন্ঠ

Leave a Reply