পদ্মায় দুই স্পিড বোটের সংঘর্ষ, আহত ১২

padmaমাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে দুটি স্পিড বোটের মুখোমুখি সংঘর্ষে পুলিশ ও জনপ্রতিনিধিসহ অন্তত ১২ জন আহত হয়েছে। সোমবার রাতে এ দুর্ঘটনায় আহতদের স্থানীয় ও ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করলেও কেউ নিখোঁজ রয়েছে কিনা তা জানাতে পারেনি।

আহতদের মধ্যে রয়েছেন বরিশাল পুলিশ লাইনের পুলিশ সদস্য তারেক (৩৩), ফরিদপুরের ভাঙার হামিদদি ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন (৪৫), মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের কান্দি পাড়ার লিমন (৩৫), সুজন(৩২), ফরিদপুরের বোয়ালমারির চন্দনা গ্রামের সামাদ বাদল (৩৬)।

মাওয়ার একটি ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর তাদের পার্শবর্তী শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

আহত যাত্রীরা জানান, কাওড়াকান্দি থেকে ১৯ জন যাত্রী নিয়ে একটি স্পিড বোট মাওয়া যাচ্ছিল। এদিকে আরেকটি স্পিড বোট ১৩ জন যাত্রী নিয়ে কাওড়াকান্দি যাচ্ছিল।

সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে মাঝি কান্দি চ্যানেলে স্পিড বোট দুটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে যাত্রীরা পদ্মায় পড়ে যায়। তবে সাঁতার কেটে কাছের একটি চরে আশ্রয় নেয়।

পরে পাশ দিয়ে যাওয়া মাওয়াগামী একটি বালুহবাহী ট্রলারে করে অধিকাংশ যাত্রী মাওয়ায় চলে আসে।

এ দুর্ঘটনায় অন্তত ১২ যাত্রী গুরুতর আহত হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

মাওয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই খালিদ হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আহত যাত্রীদের চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে, কেউ নিখোঁজ রয়েছে কি না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

বিডিনিউজ

Leave a Reply