গজারিয়ায় আহত বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থীর স্ত্রীর মৃত্যুর গুজব

luckyমুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় যৌথ বাহিনীর সঙ্গে গ্রামবাসীর সংঘর্ষে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আবদুল মান্নান মনার স্ত্রী গুলিবিদ্ধ লাকি আক্তার (৩৮) মুমুর্ষু অবস্থায় ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন আছেন। রাজধানী ঢাকার অ্যাপোলো হাসপাতালে লাইফ সার্পোটে রয়েছেন তিনি। তবে সে ক্লিনিকিলি ডেট বলে জানান ওখানকার কর্তব্যরত ডাক্তাররা।

এপ্রসঙ্গে গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন-অর রশীদ জানান, মনার স্ত্রীর মৃত্যু হয়নি। তিনি গুরুতর আহত হয়ে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে সংকটাপন্ন অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন। তবে তার মৃত্যু নিয়ে সৃষ্ট ধুম্রজালে আমরাও বিভ্রান্ত হয়েছিলেম।

জানা গেছে, গত ২৩ মার্চ গজারিয়া উপজেলার পরিষদ নির্বাচনের সময় বাউশিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত ঘোষণা করা হয়। পরে যৌথবাহিনী ব্যালট বাক্স নিয়ে যাওয়ার সময় গ্রামবাসীর সঙ্গে যৌথ বাহিনীর সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় বিএনপির বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা যুবদলের সভাপতি বর্তমান বাউশিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মনার স্ত্রী লাকি আক্তারসহ বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হন।

আহতদের মধ্যে মনার স্ত্রী লাকি আক্তারকে প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে তাকে অ্যাপোলো হসপিটালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

লাকি আক্তারের শরীরের নিচের অংশে বিদ্ধ হওয়া পাঁচটি গুলির মধ্যে চারটি গুলি বের করা সম্ভব হলেও কিডনির কাছে একটি গুলি আটকে রয়েছে। এই গুলিটি বের করা সম্ভব হচ্ছে না বলেও জানান ওসি।

এবিনিউজ

Leave a Reply