লৌহজংয়ে বিএনপির ভোট বর্জন

upzilalogoনানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শাহজাহান খান নির্বাচন বর্জন করে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি করেছেন। সোমবার বেলা ১টার দিকে লৌহজংয়ের নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রির্টানিং অফিসার মো. খালেকুজ্জামানের কাছে লিখিত পত্রে তিনি এ ঘোষণা দেন।

শাজাহান খান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, “৪৫টি কেন্দ্রের মধ্যে ২৫টি কেন্দ্রে আমার এজেন্ট ঢুকতে দেয়নি। অন্যান্য কেন্দ্রেও নানা অনিয়ম হয়েছে। তাই আমি নির্বাচন বর্জন করে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানিয়েছি।”

সহকারী রির্টানিং অফিসার মো. খালেকুজ্জামান জানান, শাহজাহান খান লিখিত একটি পত্রে নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি করেন। পত্রের কোথাও তিনি ভোট বর্জনের কথা উল্লেখ করেননি।

বিডিনিউজ
=====

লৌহজংয়ে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের নির্বাচন স্থগিত রেখে পুননির্বাচনের দাবী

মোঃ রুবেল ইসলাম: লৌহজংয়ে সকাল ৮টা থেকেই ভোট চলাকালে বিভিন্ন কেন্দ্রে সরকার সমর্থকদের তান্ডব, কেন্দ্র দখল, জাল ভোট প্রদানের ঘটনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি এবং ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এদিকে সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে আটিগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিএনপি সমর্থিত ভোটার শাহীন (৩২) ভোট দিতে গেলে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে মারধোর করে রক্তাক্ত জখম করে । এ সময় দেশীয় অস্ব্রশস্্র নিয়ে এলাকায় ভীতির সঞ্চার করে আওয়ামীলীগের সমর্থকেরা। এছাড়া ভোটদেয়াকে কেন্দ্র করে হাট নওপাড়া ভোট কেন্দ্রে দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এদিকে লৌহজং পাইলট বালিকা বিদ্যালয়, ঘোলতলী, নওপাড়া, উত্তর দিঘলী, কনকসার, হলদিয়া ও মশদগাঁও মাদ্রাসা কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয় আওয়ামীলীগের দলীয় সমর্থকেরা।

এদিকে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটের শুরুতেই ব্যাপক অনিয়ম, ৪৫টি ভোট কেন্দ্র দখলসহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে বিএনপি দলীয় প্রার্থীরা নির্বাচন স্থগিত রেখে পুননির্বাচনের দাবী জানিয়েছেন।একইসাথে এব্যাপারে উপজেলা সহকারী রিটার্নিং অফিসারের নিকট বিএনপি দলীয় প্রার্থীরা একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে বলে জানান বিএনপির সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজাহান খান।এদিকে সোমবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে বিএনপির সমর্থিত প্রার্থী শাহজাহান খান নিজ বাড়ী বেজগাঁওয়ে একাধিক ইলেকট্রনিক্স মিডিয়া ও সাংবাদিকদেরর সামনে এ ঘোষণা দিয়েছেন। একইসাথে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী অপু চাকলাদার (চশমা), মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিফাত হোসেন লুচি (ফুটবল) নির্বাচন প্রত্যাখান করে পুন নির্বাচনের একই দাবী জানিয়েছেন বলে জানান বিএনপির সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজাহান খান।

এখানে ৪৫ টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ১লাখ২৪হাজার ৮২৯। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ওসমান গনি তালুকদার (দোয়াত-কলম) ও বিএনপির সমর্থিত প্রার্থী শাহজাহান খানের (আনারস) মাঝে নির্বাচন হচ্ছিল ।এছাড়া নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ থেকে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান জাকির হোসেন বেপারী (তালা) ও বিএনপি থেকে হাবিবুর রহমান অপু চাকলাদার (চশমা), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ থেকে আবদুল্লাহ আল মামুন (বই) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন। নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ থেকে নাজনিন আক্তার স্বর্ণা (পদ্ম ফুল), বিএনপি থেকে ডা.রিফফাত হোসেন লুচি (ফুটবল) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছিল।

Leave a Reply