লিফট্‌ওয়ার ছিঁড়ে ব্যর্থ হচ্ছে মিশন

Miraz132মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মেঘনা নদীতে ঝড়ের কবলে ডুবে যাওয়া লঞ্চ এমভি মিরাজ-৪ উদ্ধারে একাধিকবার ব্যর্থ হয়েছে মিশন। শুক্রবার দু’ দফা ছিঁড়ে যায় লিফটওয়্যার।

শুক্রবার সকাল ৮টায় এবং বেলা ১১টা ২০ মিনিটে উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয়ের লিফট্ওয়্যার ছিঁড়ে যাওয়ায় বেকায়দায় পড়েছেন কোস্ট গার্ড, ফায়ার সার্ভিস, প্রশাসনসহ উদ্ধার কমীরা।

ঠিক কবে জাহাজ উদ্ধার করা যাবে তার সঠিক সময় এখন বলতে পারছেন না কেউ। তবে লিফট্‌ওয়্যার লাগিয়ে বর্তমানে আবারো উদ্ধারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

দু’শতাধিক যাত্রী নিয়ে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মেঘনা নদীতে লঞ্চ ডুবির ঘটনায় বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ২৮ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো শতাধিক যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

রাজধানীর সদরঘাট থেকে শরীয়তপুরের সুরেশ্বর যাওয়ার পথে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার দিকে গজারিয়া উপজেলার দৌলতপুর নদীতে এমভি মিরাজ-৪ নামের লঞ্চটি ডুবে যায়।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ২৮ জনের লাশ উদ্ধারের খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। দুর্ঘটনাস্থলে স্থাপিত কন্ট্রোলরুম থেকে এসব তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এদিকে উদ্ধারকাজে ব্যস্ত রয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান ড. শামসুজ্জোহা খন্দকার, এমপি মৃণাল কান্তি ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকলেও তারা রয়েছেন বিশ্রামে।

ছিঁড়ে যাওয়া দড়ির সমস্যা সমাধান করে ডুবে যাওয়া লঞ্চ বাঁধার কাজ চলছে। এভাবে লঞ্চটি টেনে তোলা সম্ভব হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

অন্যদিকে উদ্ধারকাজে ঢিলেমির অভিযোগ করছেন স্বজনরা। উৎসাহী জনতার ভীড় কখনো কখনো সমস্যা করছে বলে জানান উদ্ধারকারীরা। লঞ্চ ডুবির পর ৪০ যাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। এখনো শতাধিক যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন বলে উদ্ধার হওয়া যাত্রীরা জানিয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে ৫ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এরা হলেন- শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার পাঁচগাও গ্রামের জামাল হোসেন শিকদার (৫০), তার ছেলে আবিদ হোসেন শিকদার (২৮), টুম্পা বেগম (৩০), সেতার বেগম (৫০) ও আরিফ (১১)।

কোস্ট গার্ড, জেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনতা লঞ্চের যাত্রীদের সন্ধানে নদীতে তল্লাশি চালাচ্ছে।

‘প্রত্যয়’ নামে বিআইডব্লিউটিএ’র একটি উদ্ধারকারী জাহাজ সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে লঞ্চটি উদ্ধারে কাজ শুরু করে।

প্রত্যয়ের পেটি অফিসার এমএইচ এ মাসুদ বলেন, লঞ্চটি ৮০ ফুট পানির নিচে কাত হয়ে অবস্থান করে। ধীরে ধীরে তীরে আনার চেষ্টা চলছে।

এদিকে এ ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করেছে সমুদ্র পরিবহন অধিদপ্তর।

নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ জনসংযোগ কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম খান জানান, নৌ-বাণিজ্য অধিদপ্তরের ইঞ্জিনিয়ার অ্যান্ড শিপ সার্ভেয়ার এএসএম সিরাজুল ইসলামকে প্রধান করে তিন সদস্যের এ কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটিকে সাত দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Leave a Reply