এডিপিতে পদ্মা পাচ্ছে ৮১০০ কোটি টাকা

padmaআগামী অর্থবছরে সরকারের উন্নয়ন কর্মসূচির আকার ধরা হচ্ছে ৭৯ হাজার ৩১ কোটি টাকা, যা চলতি এডিপি’র চেয়ে ১৭ শতাংশ বেশি। ২০১৪-১৫ অর্থবছরের এডিপিতে দেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো প্রকল্প পদ্মা সেতুর জন্য বরাদ্দ রাখা হচ্ছে আট হাজার ১০০ কোটি টাকা ।

পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের (জিইডি) সদস্য শামসুল আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভায় বিশাল আকারের এই এডিপির অনুমোদন দেয়া হবে।

প্রথা অনুযায়ী অনুমোদিত এডিপি’র সঙ্গে সরকারের রাজস্ব খরচসহ অন্যান্য ব্যয় সংযোজন করে জাতীয় সংসদে বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী।

আগামী ৫ জুন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত দশম জাতীয় সংসদের প্রথম এবং তার অষ্টম বাজেট উপস্থাপন করবেন। সংসদে প্রস্তাবিত বাজেটের উপর আলোচনার পর জুন মাসের শেষের দিকে তা পাশ হবে।

শামসুল আলম বলেন, পরিকল্পনা কমিশনের পক্ষ থেকে এনইসি সভায় ৭৯ হাজার কোটি ৩১ কোটি টাকার এডিপি অনুমোদনের জন্য প্রস্তাব করা হবে। যাতে সরকার নিজস্ব তহবিল থেকে ৫১ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা যোগান দেবে; যা মুল এডিপির প্রায় ৬৫ শতাংশ। আর প্রকল্প সাহায্য হিসাবে ২৭ কোটি ৭০০ কোটি টাকা বা ৩৫ শতাংশ আসবে বলে আশা করা হয়েছে।

চলতি ২০১৩-১৪ অর্থবছরে মূল এডিপির আকার ছিল ৬৫ হাজার ৮৭২ কোটি টাকা। পরে এপ্রিল মাসে তা সংশোধন করে ৬০ হাজার কোটি টাকায় নামিয়ে আনা হয়।

প্রস্তাবিত এডিপি চলতি এডিপি’র চেয়ে ১৭ শতাংশ বেশি উল্লেখ করে শামসুল আলম বলেন, “সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার এবং উন্নয়ন কাজের ধারাবাহিকতা বিবেচনায় নিয়ে নতুন এডিপি প্রস্তাব করা হবে।”

পরিকল্পনা কমিশন নতুন এডিপি’র যে কার‌্যপত্র তৈরি করেছে তাতে বলা হয়েছে, ২০১৪-১৫ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত এডিপিতে সরকার নিজস্ব তহবিল থেকে ৫১ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা যোগান দেবে, যা মুল এডিপির প্রায় ৬৫ শতাংশ। প্রকল্প সাহায্য হিসাবে ২৭ কোটি ৭০০ কোটি টাকা পাওয়া যাবে বলে প্রত্যাশা করা হয়েছে, যা মূল এডিপির ৩৫ শতাংশ।

নতুন এডিপিতে মোট এক হাজার ৩৪টি প্রকল্প রয়েছে। এছাড়া বরাদ্দহীন ও অননুমোদিত হিসেবে ৬৮১টি প্রকল্প সবুজ পাতায় তালিকাভুক্ত করা হচ্ছে।

এবারের এডিপিতে এককভাবে সর্বোচ্চ বরাদ্দ পাচ্ছে পরিবহণ খাত। সড়ক, রেল ও সেতু বিভাগ মিলে মোট ১৮ হাজার ৯৮ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে, যা মোট এডিপির প্রায় ২৩ শতাংশ। এখাতে বহুল আলোচিত ও দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় প্রকল্প পদ্মা সেতুর জন্য বরাদ্দ রাখা হচ্ছে ৮ হাজার ১০০ কোটি টাকা।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৯ হাজার ৪০৩ কোটি টাকা রাখা হচ্ছে শিক্ষা খাতে। আর বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়কে দেওয়া হচ্ছে প্রায় ৯ হাজার ৩০০ কোটি টাকা।

চলতি অর্থবছরের মতো আগামী অর্থবছরেও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়ন ব্যয় মূল এডিপিতে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা ও করপোরেশনের ১৫৩টি প্রকল্পের বিপরীতে এবার ৫ হাজার ৬৮৫ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হচ্ছে।

৭৯ হাজার কোটি টাকার এডিপিসহ নতুন বাজেটের আকার আড়াই লাখ কোটি টাকা হবে বলে জানান শামসুল আলম।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) হালনাগাদ প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে (জুলাই-মার্চ) সরকারের সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) ৪৭ শতাংশ বাস্তবায়ন হয়েছে, যা গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে দুই শতাংশ কম।

২০১২-১৩ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ সময়ে বাস্তবায়নের হার ছিল ৪৯ শতাংশ।

বিডিনিউজ

Leave a Reply