মুন্সীগঞ্জ দিয়ে শুরু খালেদা জিয়ার সাংগঠনিক সফর

kzনির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে জাতীয় নির্বাচনের দাবি আদায়ে জনগণকে সম্পৃক্ত করতে সাংগঠনিক সফরে বের হচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

জানা গেছে, চলতি মে মাসের শেষ সপ্তাহে মুন্সিগঞ্জ সফরের মধ্যে দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি এ সফর শুরু করতে যাচ্ছেন। এ ধারাবাহিকতায় পরবর্তীতে ময়মনসিংহ, সিলেট, ফেনী, ঠাকুরগাও, নীলফামারী, কুড়িগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সফর করার কথাও রয়েছে। বিএনপি’র দলীয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, দেশব্যাপী খালেদা জিয়ার সাংগঠনিক সফরকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে একটি সফর তালিকা করা হয়েছে। যার দায়িত্বে ছিলেন দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কবে, কখন, কোন জেলায় সফর করবেন, দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ওই সফরসূচি দেখে নিজেই সিদ্ধান্ত নেবেন।

জানা গেছে, নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের জন্য আন্দোলনে ভূমিকা রাখা জেলাগুলোতে আগে সফর করবেন খালেদা জিয়া। এছাড়া আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে যে জেলাগুলোতে দলীয় নেতা-কর্মীরা বেশি নিহত ও আহত হয়েছেন, সেই জেলাগুলোকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হবে বলেও সূত্রে জানা যায়।

জানা যায়, খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে তিস্তানদীর ন্যায্য পানির দাবিতে ইস্যুভিত্তিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে সিলেট ও ফেনীতে লংমার্চ করারও নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি।

বিএনপি’র দলীয় সূত্রে জানা যায়, চেয়ারপারসনের এবারের সফরটি ভিন্ন। কেননা এই সফরের অন্যতম উদ্দেশ্যই থাকবে কি করে নির্দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের পাশাপাশি দেশব্যাপী খুন, গুম ও অপহরণের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলে ক্ষমতাসীনদের প্রতি অনাস্থা তৈরি করা যায়। তাই রমজানের আগ পর্যন্ত ইস্যুভিত্তিক ‘শান্তিপূর্ণ’ কর্মসূচি দিয়ে রাজপথ উত্তপ্ত রাখতে চায় সংসদের বাইরে থাকা দল বিএনপি। এরই অংশ হিসেবে বেশকিছু কর্মসূচিও গ্রহণ করেছে দলটি।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান শীর্ষ নিউজকে বলেন, দেশে এখন গণতন্ত্র নেই বললেই চলে। এই মুহূর্তে গণতান্ত্রিক অবস্থা ফিরিয়ে আনতে আমরা ইস্যুভিত্তিক কর্মসূচি পালন করবো। সময়ের প্রয়োজনে কঠোর কর্মসূচিও আসবে। তিনি বলেন, এখনকার রাজনৈতিক ইস্যু এবং ভবিষ্যতে যে ইস্যু সামনে আসবে, সব ইস্যুকে কাজে লাগানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বিএনপি সূত্র জানিয়েছে, আগামীকাল ২১ মে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার শুনানি রয়েছে। ওই দিন ব্যাপক শোডাউন করবে দলটি। এছাড়া ২২ মে ঢাকা মহানগর বিএনপি’র ‘র‌্যাব বিরোধী’ সম্মেলন এবং ২৪ মে আইনজীবী সমাবেশ হবে। এসব কর্মসূচিতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া উপস্থিত থাকবেন।

শীর্ষ নিউজ

Leave a Reply