শান্তা হত্যা মামলায় সাত দিনেও গ্রেফতার হয়নি প্রধান আসামি

nazmulSantaমুন্সীগঞ্জ সরকারি হরগঙ্গা কলেজের ছাত্রী শান্তা ইসলামকে (২২) অপহরণের পর হত্যার সাত দিন অতিবাহিত হলে গ্রেফতার হয়নি প্রধান আসামি নাজমুল হাসান (৩৮)। শান্তা ইসলাম হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন তার পিতা বিটিভির হিসাবরক্ষক মো. আশাদুল্লাহ্ মাদবর। এই হত্যা মামলার প্রধান আসামি প্রেমিক নাজমুল হাসান এছাড়াও আরো আসামি করা হয়েছে নাজমুলের পিতা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পেশকার সাত্তার মোল্লা ও নাজমুলের খালু আলী আহাম্মদসহ অজ্ঞাত ২-৩ জনকে।

এদিকে, ঘটনার সাত দিন অতিবাহিত হলেও প্রধান আসামি নাজমুল হাসান ও তার পিতা সাত্তার মোল্লাকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তাই এ হত্যাকাণ্ডে বিক্ষুব্ধ কলেজ শিক্ষার্থীরা ইতোপূর্বে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনের সড়কে অবস্থান নিয়ে পুরাতন কাচারী-কাটাখালী সড়ক অবরোধ সৃষ্টি করে। এ সময় হত্যা মামলায় আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার, সুষ্ঠ তদন্ত ও খুনিদের ফাঁসির দাবিতে জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল হাসান বাদলের কাছে স্মারকলিপি দেন কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।
santa0

nazmulSanta
উল্লেখ্য, গত ৭ জুন শনিবার সকালে সরকারি হরগঙ্গা কলেজ সংলগ্ন খালইষ্ট এলাকা থেকে অপহরণ করে শান্তা ইসলামকে সাভারে নিয়ে গত ৯ জুন সোমবার দুপুরে কলেজছাত্রী ও কিন্ডারগার্টেন স্কুলশিক্ষিকা শান্তা ইসলামকে হত্যা করে আইনজীবী নাজমুল হাসান ও তার সঙ্গীরা। পরে তার মুন্সীগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকা থেকে সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তার লাশ পুলিশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নাজমুল হাসানের খালু এজাহারভুক্ত আসামি আলী আহাম্মদকে লাশের সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্স থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এবিনিউজ

Leave a Reply