শ্রীনগর বাজারে স্বর্ণের দোকানে ছাত্রলীগ নেতার সন্ত্রাসী হামলা

hamla4ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ মিছিল
আরিফ হোসেন: শ্রীনগর বাজারের স্বর্ণ পট্টিতে এক ছাত্রলীগ নেতার ও তার সঙ্গীদের সন্ত্রাসী হামলায় গোপাল দাস (৩৫) নামে এক স্বর্ণ কর্মকার আহত হয়েছে। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। গত সোমবার রাত দশটার দিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলাকারীদের সাথে ব্যবসায়ীদের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। পুলিশ এসে পরিস্থিত নিয়ন্ত্রণ করে। পরে শতাধিক স্বর্ণ ব্যবসায়ী তাদের দোকান-করখানা বন্ধ করে প্রতিবাদে রাত সাড়ে দশটার দিকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। শ্রীনগর বাজার স্বর্ণ ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক সমর দত্ত জানান, দ্রুত হামলাকারীদের গ্রেফতার করা না হলে স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা কঠোর আন্দোলনের ঘোষণা দিতে বাধ্য হবে।

শ্রীনগর থানার ওসি (তদন্ত) মুজিবুর রহমান জানান, শ্রীনগর উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাপস মন্ডলকে ‘ইয়াবা বিক্রেতা’ বলায় ঘটনার সূত্রপাত হয়। এই অভিযোগে স্বর্ণকর্মকার গোপাল দাসকে বাজারের আরেক প্রান্তে ডেকে নেয়ার জন্য লোকজন পাঠায় তাপস মন্ডল। কিন্তু গোপাল যেতে রাজি হয়নি। এতে আরও ক্ষিপ্ত হয় ঐ ছাত্রলীগ নেতা। রাত সাড়ে নয়টার দিকে সে তার ১০/১২ জন সঙ্গীকে নিয়ে স্বর্ণ পট্টিতে এসে কেশব দাসের দোকানের ভেতর ঢুকে তার কারিগর গোপাল দাসকে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে স্বর্ণব্যবসায়ীরা একত্রিত হয়ে হামলাকারীদের ধাওয়া করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, এর কিছুক্ষণ পর ঐ ছাত্রলীগ নেতার নেতৃত্বে ২৫/৩০ জন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পুনরায় স্বর্ণ পট্টিতে হামলা চালায় । এতে অনেক্ষন ধরে দুগ্র“পে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলতে থাকে। এতে পুরো বাজারে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করলেও হামলাকারীদের কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এঘটনায় স্বর্ণ ব্যবসায়ী কেশব দাস বাদী হয়ে শ্রীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাপস মন্ডলের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Leave a Reply