লৌহজংয়ে পিতৃহীন প্রতিবন্ধী কিশোরীকে গণধর্ষণ

rapeবিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে রাতভর তিন পাষণ্ড ধর্ষণ করেছে এক বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী কিশোরীকে। ২০-২৫ দিন আগে জাজিরা থানার পালের চর গ্রামের পিতৃহীন প্রতিবন্ধী মেয়ে (১৪) তার চাচাতো বোনের বাড়ি মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজংয়ের মর্শদগাঁও গ্রামে বেড়াতে আসে। এ সময় পরিচয় হয় পাশের বাড়ির সিরাজুল বেপারীর বখাটে ছেলে টমটমচালক ইউনুছ বেপারীর সঙ্গে। কিশোরীর সরলতা দেখে প্রায়ই তার বোনের বাড়ির পাশ দিয়ে যাতায়াতের সময় বিয়ের প্রলোভন দেখাত ইউনুছ।

মঙ্গলবার বিকালে চাচাতো বোনের বাড়ির লোকজন অন্যত্র বেড়াতে যাওয়ার সুযোগে লম্পট ইউনুছ তার আরও দুজন সঙ্গী নিয়ে মেয়েটিকে তার চাচাতো বোনের বাড়ি থেকে বের করে আনে এবং টমটমে করে পয়সা পশ্চিমপাড়ার একটি কমিউনিটি ক্লিনিকে নিয়ে যায়। সেখানে আটকে রেখে তিন লম্পট মর্শদগাঁও গ্রামের সিরাজুল বেপারীর ছেলে ইউনুছ বেপারী, পয়সা পশ্চিমপাড়া গ্রামের রহিম শেখের ছেলে শাহিন ও অজ্ঞাত আরেক যুবক রাতভর ধর্ষণ করে। ভোররাতে কিশোরীকে ক্লিনিক থেকে বের করে ঢাকা-মাওয়া রোডের একটি বাসে উঠিয়ে দেয় লম্পটরা। রাতভর খোঁজাখুঁজির পর সকালে মাওয়া থেকে ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে হাসপতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তিন ধর্ষককে আসামি করে লৌহজং থানায় মামলা করেছেন ধর্ষিতার ভগ্নিপতি।

যুগান্তর

Leave a Reply