মুন্সীগঞ্জে যুবলীগ কর্মী গুলিবিদ্ধ : টানটান উত্তেজনা

guliমুন্সীগঞ্জে এবার জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. মহিউদ্দিন সমর্থক যুবলীগ ক্যাডার অঙ্কন (৩০) গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাত পৌনে ১১টার দিকে শহরের মানিকপুরস্থ জেনারেল হাসপাতাল সংলগ্ন সড়কে এ গুলির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গতকাল সকালে সংসদ সদস্য এডভোকেট মৃণাল কান্তি দাসের সমর্থক ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য আবু বক্কর সিদ্দিক মিথুনকে আসামি করে সদর থানায় মামলা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় এমপি সমর্থকদের ওপর হামলা ও ঈদ শুভেচ্ছার ফেস্টুন বিনষ্ট করার ঘটনায় আবু বক্কর সিদ্দিক মিথুন অঙ্কনসহ ৯ জনকে আসামি করে মুন্সীগঞ্জ থানায় মামলা করেন। পাল্টাপাল্টি হামলা ও গুলির ঘটনায় মুন্সীগঞ্জে আতঙ্ক বিরাজ করছে। জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন সমর্থক ও সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা ও অস্ত্রের ঝনঝনানি চলছে। ২ শীর্ষ নেতার শেল্টারে এ অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটনায় পুলিশ রয়েছে বিপাকে। কোন পক্ষেরই মামলার কোন আসামি পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তবে বৃহস্পতিবার রাতে করা মামলার ৯ আসামির কাউকে গ্রেপ্তার না করায় পরে শুক্রবার রাত পৌনে ১১টায় গুলির ঘটনা ঘটেছে বলে সূত্র জানায়।

এলাকাবাসী জানায়, গত বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় শহরের গণপূর্ত ভবন সড়কে মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাসের ৩ সমর্থকের ওপর হামলা চালিয়ে ঈদ শুভেচ্ছার অর্ধশতাধিক ফেস্টুন কেটে ফেলে জেলা আওয়ামী লীগ সমর্থক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন গ্রুপ। এ ঘটনায় ওই দিন রাত সাড়ে ৮টায় মৃণাল কান্তি দাসের সমর্থক শহরের শ্রীপল্লী এলাকার আবু বক্কর সিদ্দিক মিথুন বাদী হয়ে শাহজালাল মিজি, চাকু মিলন, রাজু, জামান, মহিউদ্দিন ওরফে আরিফ, ফারুক, রাফি, মাহবুব উল আলম মৃদুল ও অঙ্কনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

এরপর শুক্রবার রাত পৌনে ১১টার দিকে শহরের মানিকপুরস্থ জেনারেল হাসপাতাল সংলগ্ন সড়কে অঙ্কনকে গুলির করার ঘটনা ঘটে।

মানবজমিন

Leave a Reply