আজ আসছে পদ্মা সেতু প্রকল্পের তৃতীয় শিপমেন্টের মালামাল

padma5পদ্মা সেতু প্রকল্পের কাজে ব্যবহারের জন্য তৃতীয় শিপমেন্টের মালামাল আগামীকাল রবিবার দেশে পৌঁছাবে। মালামালের এ চালান বঙ্গোপসাগরের কক্সবাজার নৌ-এলাকার কতুবদিয়া চ্যানেলের গভীর সমুদ্রে খালাস করা হবে।

চীন থেকে সমুদ্রপথে দু’টি সাবমার্জেবল ভ্যাসেলে এসব মালামাল আনার পর কতুবদিয়ায় তা খালাস করে সেখান থেকে লাইটার জাহাজে এসব মালামাল সরাসরি মাওয়ায় নিয়ে আসা হবে।

এদিকে চীন থেকে আসা পদ্মা সেতুর ২য় শিপমেন্টের মালামালের ৪র্থ দফা চালান শনিবার মাওয়ায় খালাস করা হয়েছে। তবে এ চালানের দু’টি ট্রেইলর ও দু’টি ট্রাক চট্টগ্রাম বন্দর থেকে রওনা হলেও প্রতিকুল আবহাওয়ার কারনে আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত পৌছায়নি।

এদিকে পদ্মা সেতুর কার্যক্রম জোরে-সোরে চলতে থাকায় মাওয়াবাসীর মাঝে বইছে আনন্দ ও উৎসবের আমেজ ।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের জানান, ৩য় শিপমেন্টের মালামাল নিয়ে দু’টি সাবমার্জেবল ভ্যাসেল গত ২৯ সেপ্টেম্বর চীনের সাংহাই বন্দর থেকে রওনা হয়। তিনি বলেন, ড্রেজার, ভাসমান ক্রেন, টাগবোটসহ সেতুর কাজে ব্যবহারের জন্য অন্যান্য যন্ত্রপাতি বহনকারী এই দু’টি ভ্যাসেল আগামীকাল রবিবার বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়া মোহনায় পৌছার কথা।

পানির গভীরতা কম থাকায় চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ৪৫ নটিক্যাল মাইল দূরে বড় আকারের এই জাহাজ দু’টি গভীর সমুদ্রে নোঙ্গর করা হবে উল্লেখ করে আব্দুল কাদের বলেন,বিশেষ ব্যবস্থায় সেখানেই কাস্টমসের ফর্মালিটিস শেষে ছোট জাহাজে সরাসরি মালামাল মাওয়ায় আনা হবে।

তিনি জানান, ১২ অক্টোবর রবিবার জাহাজ দু’টি পৌছার কথা থাকলেও আবহাওয়া পরিস্থিতি অনুকুলে থাকলে হয়তবা শনিবার গভীর রাতেও তা কতুবদিয়া মোহনায় পৌছাতে পারে। কারন সাব মার্জেবল ভ্যাসেল দু’টি বাংলাদেশের কাছাকাছি অবস্থান করছে।

এসব মালামাল গ্রহনের জন্য তাদের সব প্রস্তুতি রয়েছে এবং এ শীপমেন্টের মালামাল আসার পরই মূল সেতুর অনেক কাজ দৃশ্যমান হবে বলে তিনি দাবি করেন। পদ্মা সেতুর মালামালের লজিস্টিক ক্লিয়ারিং এন্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট এসআই চৌধুরী অ্যান্ড কম্পানি লিমিটেডের (সিকো গ্রুপ) নির্বাহী পরিচালক আলী আহমেদ (আলী) জানান, চট্টগ্রাম বন্দর থেকে সড়ক পথে ১৬টি লরী (ট্রেইলার) ও পাঁচটি ট্রাকে করে পদ্মা সেতুর পাইলিং কাজের জন্য ড্রেজিং পাইপা মাওয়ায় আনা হয়েছে।
মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কুমারভোগে পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে তা খালাস করা হয়।

পদ্মা সেতু নির্মাণের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজের প্রকৌশলীদের উপস্থিতিতে এ মালামাল সেতু কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ সময় চায়না মেজর ব্রিজের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কালের কন্ঠ

Leave a Reply