শুভ জন্মদিন সাহাদাৎ রানা

এটিএন নিউজের সিনিয়র নিউজরুম এডিটর সাহাদাৎ রানার জন্মদিন ৬ ডিসেম্বর। শুভ জন্মদিন সাহাদাৎ। ১৯৮২ সালের এই দিনে মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়া উপজেলার গুয়াগাছিয়া ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামে সাহাদাৎ রানা জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মৃত অ্যাডভোকেট আবদুল গাফফার ও মা শেফালী আক্তারের তিন সন্তানের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়।

রানা ১৯৯৭ সালে মুন্সীগঞ্জের রনছ রুহিতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের মানবকি বিভাগ থেকে এসএসসি, ২০০০ সালে সরকারি হরগঙ্গা কলেজের মানবিক বিভাগর থেকে এইচএসসি ও ২০০৩ সালে একই কলেজে থেকে জাতীয় বিদ্যালয়ের অধীনে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে (অনার্স) এবং ২০০৪ সালে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। এ ছাড়া ২০০৯ সালে পিআইবি থেকে সাংবাদিকতার ওপর স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা করেন। এরই মাঝে ২০০৯ সালে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এলএলবি ডিগ্রিও নেন। মুন্সীগঞ্জ আইনজীবী সমিতির একজন সন্মানিত সদস্য তিনি। এ ছাড়া বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে এমফিল করছেন।

সাহাদাৎ রানা ২০০৩ সালে ঢাকা থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক চলতিপত্রে স্পোর্টস রিপোর্টার হিসেবে যোগদানের মধ্য দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু করেন। এর পর কাজের ধারাবাহিকতায় ২০০৮ সালে যোগ দেন দৈনিক বাংলাদেশ সময় পত্রিকায়। সেখানে দুই বছর মফস্বল সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ২০১০ সালের এপ্রিলে বেসরকারি নিউজ চ্যানেল এটিএন নিউজে স্পোর্টস ডেস্কে সিনিয়র নিউজরুম এডিটর হিসেবে যোগ দেন।

সাংবাদিকতার পাশপাশি রানা সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত। ২০০৯ সালে ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের সদস্য, ২০১০ সালে একই সংগঠনের দফতর সম্পাদক ও ২০১৩ সালে কোষাধ্যক্ষ পদে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া তিনি ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নেরও একজন সদস্য।

সাহাদাৎ রানা ২০০৮ সালের ১৪ মার্চ জিয়াসমিন আক্তারের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। জিয়াসমিন হরগংঙ্গা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ থেকে মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন। বর্তমানে তিনি মুন্সীগঞ্জে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করছেন। এই দম্পতির ৫ বছরের রাইসা মালিয়াত ফিহা ও দুই বছরের রিয়ানা মালিয়াত ত্বোয়া নামে দুই মেয়ে রয়েছে।

রানা জানান, তার পছন্দের রং লাল ও ফুল সন্ধ্যা মালতি। খেতে ভালবাসেন ভুনা খিচুড়ী। আর অবসর সময়ে এই সাংবাদিক বই পড়তে ও লিখতে পছন্দ করেন।

দ্য রিপোর্ট

Leave a Reply