সিরাজদিখানে এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের নামে অতিরিক্ত ফি আদায়

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় ২০১৫ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ৪ টি কলেজের মধ্যে ২ টি কলেজে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষা বোর্ডের নির্ধারিত ফি ১৬১০ টাকা হলেও আদায় করা হচ্ছে কয়েকগুন বেশী টাকা। এ নিয়ে অভিভাবক মহলে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। উপজেলার বিক্রমপুর আদর্শ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের কোচিং ফিসহ ফরম ফিলাপ ৬১৫০ টাকা, মালখানগর কলেজের ৪৭০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। সন্তানের উপর শিক্ষকরা নারাজ হবেন এ চিন্তা করে ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা মুখ ফুটে কিছু বলতে পারছেননা।

বিক্রমপুর আদর্শ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের এক অভিভাবক হতাশা প্রকাশ করে বলেন, আমি দিন মজুর মানুষ। সংসারে চার সদস্যের মধ্যে আমি একাই উপার্জন করি। অনেক কষ্টে মেয়েটাকে এ পর্যন্ত লেখা পড়া শিখিয়েছি। ফরম ফিলাপের এতো টাকা জোগাড় করতে পারছিনা। টাকার অভাবে মেয়েটোর লেখাপড়া মনে হচ্ছে এখানেই থেমে যাবে।

বিক্রমপুর আদর্শ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাধ্যক্ষ মো.ওয়াহেদুর রহমান জানান,কোচিং ফি ১৬৫০ টাকাসহ ৬১৫০ টাকা নিচ্ছি। তবে ইছাপুরা কেবি ডিগ্রী কলেজ ও আলহাজ্ব আলী আজগর এন্ড আবদুল্লাহ কলেজে সরকারি ফী হিসেবেই ফরম ফিলাপ করা হচ্ছে বলে জানান কলেজের অধ্যক্ষদ্বয়।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির মুন্সীগঞ্জ জেলার কলেজ শাখার সভাপতি মো.শামসুল হক হাওলাদার জানান, অতিরিক্ত ফি নেওয়ার কথা আমিও শুনেছি। তবে বেশী নেওয়া ঠিক না।

সিরাজদিখান উপজেলা শিক্ষা অফিসার খালেদা পারভীন জানান, অতিরিক্ত ফি আদায়ের ঘটনা আমি শুনেছি। আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মুন্সীগঞ্জ বার্তা

Leave a Reply