টঙ্গিবাড়ীতে গৃহবধু সীমা হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার

সুমিত সরকার সুমন: মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ীতে যৌতুকের টাকা না পেয়ে সীমা আক্তার (২২) নামে এক গৃহবধুকে বালিশ চাঁপা দিয়ে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুলিশ স্বামী শাহীন শেখকে (৩০) গ্রেফতার করেছে। সোমবার দিবাগত রাতের আঁধারে টঙ্গিবাড়ী উপজেলার চিত্রকড়া গ্রামে গৃহবধুর হত্যার এ ঘটনা ঘটে।

আজ মঙ্গলবার সকালে স্বামীর বসত-ঘরের শয়নকক্ষ থেকে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেছে।

পরে নিহতের মা রাশেদা বেগম বাদী হয়ে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি ও ননদকে আসামী করে টঙ্গিবাড়ী থানায় হত্যার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন।

টঙ্গিবাড়ী থানার ওসি আব্দুল মালেক গৃহবধু হত্যার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, সকালে গৃহবধু হত্যার খবর পেয়ে স্থানীয়রা স্বামী শাহীনকে আটক করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে। পুলিশ স্বামীকে গ্রেফতার করে টঙ্গিবাড়ী থানা হেফাজতে নিয়ে আসে।

নিহতের ভাই ইমরান হোসেন অভিযোগ করেন- বিয়ের পর থেকেই ৫ লাখ টাকা যৌতুক চেয়ে সীমাকে নির্যাতন করে আসছে স্বামীর বাড়ির লোকজন।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের ১১ নভেম্বর জেলার লৌহজং উপজেলার কলমা গ্রামের প্রয়াত মোখলেস শেখের মেয়ে সীমা আক্তার ও একই জেলার টঙ্গীবাড়ি উপজেলার চিত্রকড়া গ্রামের এছাক শেখের ছেলে শাহীন শেখের মধ্যে বিয়ে হয়।

বিডিলাইভ

Leave a Reply