শ্রীনগরে বিয়ের পরদিন স্বামীর জিহবা কেটে নিয়েছে নববধু

আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে বিয়ের একদিন পর স্বামীর জিহবা কেটে নিয়েছে নব বধু ও তার প্রেমিক। গত শুক্রবার রাতে উপজেলার কেয়টখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, কেয়টখালী গ্রামের আনিছ শেখের মেয়ে শান্তা ইসলামের (২০) সাথে গত বৃহস্পতিবার পারিবারিক ভাবে ঢাকার শহীদ নগর এলাকার আঃ আজিজ মিয়ার ছেলে আ: মান্নানের (২৫) বিয়ে হয়।

বিয়ের পরদিন গত শুক্রবার মেয়ের বাড়ীর লোকজন প্রথা অনুযায়ী নব বধু ও তার স্বামীকে কেয়টখালী গ্রামে মেয়ের বাড়িতে নিয়ে আসে। ওই দিন রাত দুইটার দিকে শান্তা তার চাচাতো ভাই ও প্রেমিক আজাহার (৩২) এর পরামর্শে তার স্বামী মান্নানকে দুধের সাথে ঘুমের ঔষধ খাওয়ায়।এর পর মান্নান ঘুমিয়ে পড়লে শান্তা তার প্রেমিককে মোবাইল ফোনে ডেকে আনে। শান্তার ফোন পেয়ে আজাহার তার তিন সঙ্গীকে নিয়ে শান্তার ঘরে ঢুকে। পাচঁ জন মিলে মন্নানকে শ্বাষ রোধ করে হত্যার জন্য গলায় চাপ দিয়ে ধরে।

এসময় মান্নানের জিহবা বের হয়ে আসলে তারা ধারালো কাচি দিয়ে মান্নানের জিহবাটি মাঝ খানে কেটে দুভাগ করে ফেলে। ঘরের ভিতরে ধ্বস্তা ধ্বস্তির শব্দে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে শান্তার প্রেমিক ও তার সঙ্গীরা পালিয়ে যায়। মান্নানকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মিডফোর্ট হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এঘটনায় মান্নানের বাবা আঃ আজিজ বাদী হয়ে শনিবার রাতে ৬ জনকে আসামী করে শ্রীনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনার পর থেকে শান্তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে।

Leave a Reply