সবজি এখন মুন্সীগঞ্জের কৃষকের বোঝা : ক্রেতা না পেয়ে ফেলে দিচ্ছে

মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল: মুন্সীগঞ্জের সুস্বাধু সবজি এখন মাথার বোঝা। টানা অবরোধ আর হরতালের কারণে এখানে সবজি বাজারজাত করা যাচ্ছে না। কৃষি বিভাগের হিসাবে প্রতিদিন অন্তত সাড়ে ৭ টন সবজি উদ্বৃত্ত থেকে বিনষ্ট হচ্ছে। তাই এখানকার সবজি বাজারে দরপতন হয়েছে। বিনষ্ট হচ্ছে ফুলকপিসহ নানা রকমের সবজি। এখানকার কৃষক এখন দিশেহারা।

হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের ফসল হাটে এনে ক্রেতা না পেয়ে রাগ আর ক্ষোভে তা ফেলে দিচ্ছে। যার নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে কৃষিনির্ভর এই জনপদে। সংশ্লিষ্টরা জানান, মুন্সীগঞ্জের সবজি সব বাজারেই লোভনীয়। রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বাজারে এই সবজির কদর দীর্ঘদিনের। শুধু দেশের বাজারেই নয় ইউরোপেও এই সবজির চাহিদা রয়েছে। ছোট আকারের লাউসহ নানা সবজি নিয়মিত রফতানি হয় মুন্সীগঞ্জ থেকে।

কিন্তু অবরোধ-হরতালসহ রাজনীতির আগুন সেই সম্ভাবনার আসরে পানি ঢেলে দিয়েছে। কৃষকের বুকের আশা বালুর বাঁধের মতো ভেঙ্গে গেছে। জমির কষ্টার্জিত ফসল এখন মাথার বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সবজির বাজারগুলোতে এখন ক্রেতার বড় অভাব। ভিড় শুধু বিক্রেতার। বজ্রযোগিনীর চাষী শহিদুল ইসলাম জানান, এই অবরোধ হরতালে কৃষকের যে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে। কৃষকের পথে বসার অবস্থা। সবজি বাজারে এনে বিক্রি করতে না পেরে প্রায় প্রতিদিনই সবজি ফেলে দিতে হচ্ছে। কাঁচা এই খাদ্যশস্য বাজারজাতের ক্ষেত্রে এবং জনদুর্ভোগ লাঘবে কারও যেন কোন কিছু করার নেই। ক্ষমতা নিয়েই সব চেষ্টা চলছে। কোন কিছুতেই পরিবর্তন হচ্ছে না। এক পাশান মনের কারণে কোটি কোটি মানুষ কষ্ট করছে।

জনকন্ঠ

Leave a Reply