ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের দায়িত্ব পাচ্ছে ইএসডিও : পদ্মা সেতু প্রকল্প

পদ্মা সেতু নির্মাণে ভূমি অধিগ্রহণের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি, পরিবারের জীবিকা পুনরুদ্ধার-পুনর্বাসন ও স্থানান্তরিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুনর্বাসনে পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে নতুন আরেকটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে (এনজিও) নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। নতুন এ এনজিওটি হচ্ছে ‘ইকো সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন’ (ইএসডিও)। পুনর্বাসন কাজে ব্যয় হবে ১৩ কোটি ১৫ লাখ টাকা।

বুধবার সচিবালয়ে অনুষ্ঠেয় অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এটি অনুমোদন দেওয়া হবে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এনজিও নিয়োগ প্রস্তাবের সার-সংক্ষেপে বলা হয়েছে, পদ্মা বহুমুখী সেতু বাস্তবায়নের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং ও শ্রীনগর, শরীয়তপুর জেলার জাজিরা উপজেলা ও মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার মোট ৩১টি মৌজায় ১ হাজার ৪০৮ হেক্টর জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। এসব স্থানে যে সব পরিবার ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ছিল সেগুলো পুনর্বাসনে পাঁচটি পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে এবং সেগুলো বাস্তবায়নাধীন রয়েছে।

সার-সংক্ষেপে বলা হয়, এর আগে পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়নকালে ভূমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো পুনর্বাসনে ‘খ্রিস্টিয়ান কমিশন ফর ডেভেলপমেন্ট ইন বাংলাদেশ’কে (সিসিডিবি) নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল। ২০০৯ সালের ১ নভেম্বর থেকে চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত এ এনজিওটি কাজ করে। কিন্তু পরবর্তীতে অতিরিক্ত ভূমি অধিগ্রহণ ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় সিসিডিবি’র পক্ষে পুনর্বাসন কাজ সম্পূর্ণ করা সম্ভব হয়নি।

এমতাবস্থায় ক্ষতিগ্রস্ত সম্পদের বিপরীতে ক্ষতিপূরণ ও অতিরিক্ত সহায়তা প্রদান এবং প্লট বিতরণ, স্বেচ্ছায় পুনর্বাসিত পরিবারগুলোকে বিভিন্ন সহায়তা প্রদান ও হোস্ট ভিলেজের অবশিষ্ট কাজ সম্পন্ন করার লক্ষ্যে আরেকটি প্রতিষ্ঠান নিয়োগ দেওয়া প্রয়োজন বলে সার-সংক্ষেপে বলা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ জানায়, বুধবারের ক্রয় কমিটির বৈঠকে আরও চারটি প্রস্তাব উপস্থাপিত হবে। অন্যান্য প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে— ‘স্বল্প ও মধ্যম আয়ের জনগোষ্ঠীর জন্য ঢাকার উত্তরার ১৮নং সেক্টরে এ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ১টি প্যাকেজে ২টি লটে (লট ৪১ ও ৪২) ১ হাজার ২৫০ বর্গফুট আয়তনের ১টি বেসমেন্টসহ ১৬ তলাবিশিষ্ট ৮টি ‘এ’ টাইপ ভবনে ৬৭২টি ফ্ল্যাট (অভ্যন্তরীণ বিদ্যুৎ, পানি ও গ্যাস সরবরাহ, পয়ঃপ্রণালী, অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ও অন্যান্য আনুষঙ্গিক কাজসহ) নির্মাণের ঠিকাদার নিয়োগ; এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন-এর বাইরের দিক সংলগ্ন একটি লুপ রোডসহ ঢাকা ট্রাঙ্ক রোড থেকে বায়েজিদ বোস্তামী সড়ক পর্যন্ত সংযোগ সড়ক নির্মাণ; পল্লী এলাকায় ১৮ লাখ গ্রাহকের মধ্যে বিদ্যুৎ সংযোগ সম্প্রসারণ প্রকল্পের আওতায় ২৫টি ট্রান্সফরমার, ৩ ফেজ (১০এমভিএ) ক্রয় ইত্যাদি।

এর মধ্যে স্বল্প ও মধ্যম আয়ের জনগোষ্ঠীর জন্য উত্তরায় ১টি প্যাকেজে ২টি লটে (লট ৪১ ও ৪২) ১ হাজার ২৫০ বর্গফুট আয়তনের ১টি বেসমেন্টসহ ১৬ তলাবিশিষ্ট ৮টি ‘এ’ টাইপ ভবনে ৬৭২টি ফ্ল্যাট নির্মাণে মোট ব্যয় হবে ৩৫৬ কোটি ২৮ লাখ টাকা এবং দুটি লটের কাজই পেয়েছে ‘তমা কনস্ট্রাকশন এ্যান্ড কোম্পানি লিমিটেড।’ এ দুটি লটের কাজের জন্য যথাক্রমে ৫টি ও ৪টি প্রতিষ্ঠান আবেদন করেছিল।

এছাড়া ২৫টি ট্রান্সফরমার, ৩ ফেজ (১০এমভিএ) সরবরাহের কাজটি পেয়েছে ‘এনার্জি প্যাক ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড’। এতে মোট ব্যয় হবে ৪৭ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। আর এ কাজটি পাওয়ার জন্য চারটি প্রতিষ্ঠান আবেদন করেছিল।

দ্য রিপোর্ট

Leave a Reply