ভবেরচরে আশ্রয়ন প্রকল্পের বেহাল দশা

মোয়াজ্জেম হোসেন (জুয়েল): ১৯৯৮ সালে নির্মিত গজারিয়া উপজেলার ভবেরচর ইউণিয়নের ভিটিকান্দি আশ্রয়ন প্রকল্পের বসবাসের ঘরগুলো বেহাল দশায় পরিনত হয়েছে। সংস্কার না করার কারনে এ গুলো বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে, আশ্রয়নেয়া ছিন্নমুল পরিবার গুলো চরম কষ্টে ভাঙ্গাঘরে বসবাস করে রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে বসবাস করতে বাধ্য হচ্ছে। সরেজমিন অনুসন্ধানে জানাযায়, উপজেলার ভবেরচর, ইউণিয়নের ভিটিকান্দি গ্রামে একটি আশ্রয়ন প্রকল্প নির্মান করা হয়।

স্থানীয় উপজেলাধীন ভুমিহীন ছিন্নমূল ২০ পরিবারকে বরাদ্দ দেয়া হলে তারা সেই থেকে সেখানে বসবাস করে আসছে। আশ্রয়ন প্রকল্পে আশ্রিত জানান ঢেউ টিন দিয়ে আশ্রয়নের ঘর গুলো নির্মান করা হয়। এতে ১২ বছরেই প্রতিটি টিনগুলো মরিচা ধরে বিনষ্ট ও ফুটো হয়ে গেছে। সেই ফুটো টিন দিয়ে বৃষ্টির পানি গড়িয়ে পড়ছে ঘরে। এ ছাড়া ঘরের দরজা জানালা গুলোর কোন অস্তিত্ব নেই।

ফলে ঘরগুলো বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এছাড়া সে সময়ের স্থাপন করা টিউবওয়েল গুলো অকেজো হয়ে পরে আছে। কোন টিউবওয়েল দিয়ে পানি উঠছে না। আশ্রিত পরিবারের সদস্যরা আশ্রয় প্রকল্পের ল্যাট্রিনগুলো অনেক আগেই নষ্ট হওয়ায় প্রকৃতির ডাকে সাড়া এসব পরিবারের সদস্যরা খোলা মাঠ ব্যবহার করতে বাধ্য হচ্ছেন।আশ্রয়নের আশ্রিত নবি হোসেন (৬০), মনোয়ারা বেগম (৫০), আবু-কাসেম (৪৮) ও কল্পনা রানী (৫০) জানান এ আশ্রয়নে দুটি ব্যারাক রয়েছে। এক একটি ব্যারাকে ১০টি করে পরিবার বাস করে।

কয়েক বছর আগে ২নং ব্যারাকে আগুন লাগার পর পুনরায় নির্মান করে দেয়, কিন্তু ১নং প্রকল্পগুলো নির্মানের পর থেকে সংস্কার না করায় ভাঙ্গা ঘরগুলোতে রোদ কিংবা বৃষ্টি কোন সময়েই থাকা যায়না। রাতে বৃষ্টি হইলে ছোট বাচ্চাদের নিয়ে ঘরের কোণে পলিথিন মাথায় দিয়ে নির্ঘুম রাত কাটাতে হয়।

গজারিয়া আলোড়ন

Leave a Reply