গোলাম সারোয়ার কবীর: শ্রীনগর আ’লীগের রাজনীতিতে রাজনৈতিক ধাক্কা

মোহাম্মদ সেলিম: শ্রীনগরে আ’লীগের রাজনীতি আবার ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। শ্রীনগরে ছাত্রলীগের কমিটিকে কেন্দ্র করে এখানে মুন্সীগঞ্জ ১ আসনের সাংসদ সুকুমার রঞ্জন ঘোষ প্রথমবারের মতো রাজনৈতিক ধাক্কা খেয়েছেন। তার একক আধিপত্যে সামাজ্যে তুখুড় আ’লীগ নেতা গোলাম সারোয়ার কবীর তার দরজায় কড়া নাড়ছে। এর মধ্যে তার ভাগের অর্ধেক অংশে থাবা বসিয়ে রাজনৈতিক চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন এই তরুণ রাজনীতিবিদ। এখন শ্রীনগরে আ’লীগের রাজনীতি সেয়ানে সেয়ানে জমে উঠবে।

শ্রীনগরের রাজনীতিতে সুকুমার তার বিপক্ষে কোন নেতাকে বিগত দিনে দাঁড়াতে দেয়নি। যারা দাঁড়াতে চেষ্ঠা করেছে তাদেরকে সে নানাভাবে বিদায় করেছেন। বিতাড়িতদের সে শ্রীনগরের উপজেলা কমিটিতে জায়গায় দেয়নি। মনের দু:খে অনেকেই শ্রীনগরে আ’লীগের রাজনীতি চর্চা ছেড়েই দিয়েছেন। এই খোলামাঠে সুকুমার শ্রীনগরে আ’লীগের রাজনীতি জেকে বসে ছিল।

শ্রীনগরে আ’লীগের দু:দিনের রাজনীতিতে সবচেয়ে বেশি সময় দিয়েছেন শ্রীনগর আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ। নুর মোহাম্মদ এই আসনে মনোনয়ন চেয়ে ছিলেন। এটাই ছিল তার অপরাধ। আর সেই অপরাধে এই পদ থেকে তাকে বিদায় নিতে হয়েছে। নুর মোহাম্মদ এর অতীত ইতিহাসের খবর এখন এ প্রজন্ম জানে না।

শ্রীনগরের আ’লীগের রাজনীতিতে এখন ক্ষমতাধর দু’নেতার প্রভাব বিস্তার চলছে। যারা সুকুমারের কাছে যেতে পারেনি, তারা গোলাম সারোয়ারের দিকে ঝুকে পড়ছে। সুকুমার সাধারণ লোকজনের সাথে তেমন একটা মিসেন না বলে অভিযোগ উঠেছে। তার পক্ষে সভা সমিতির আয়োজন করা হলে সময়ের সল্পতার অজুহাতে সুকুমার ঢাকা থেকে এসে দ্রুত অনুষ্ঠান শেষ করে আবার ঢাকায় ফিরে যান। সাধারণ মানুষ তার ধারে কাছে এখন আর পৌঁছাতে পারছে না। তার ব্যবসায়িক পার্টনার সিরাজ তার নামের ওপর শ্রীনগরের অনেক জায়গা দখল করে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নানা কারণে সুকুমারের সাথে সাধারণ মানুষের দূরত্ব বাড়ছে। আর সেই জায়গায় ফিরে যাচ্ছে।

বিক্রমপুর সংবাদ

Leave a Reply