লৌহজংয়ে ছাত্রলীগের আহবায়ককে কুপিয়ে জখম

সালাউদ্দিন সালমান: মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে মেদেনীমন্ডল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো. রাজা মিয়াকে সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। তাকে মুমূর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাজা মিয়া উপজেলার মেদেনীমন্ডল ইউনিয়নের কান্দি পাড়া গ্রামের নুর ইসলাম কন্ট্রাকটরের ছেলে।

রাজা মিয়ার মামা মো. নয়ন জানান, গতকাল সোমবার বিকালে লৌহজং থানায় মামলা করার জন্য বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দাখিল করেছি। তিনি আরো জানা, গত বৃহস্পতিবার বিকালে পূর্ব শত্রুতার জেরে, উত্তর মেদেনীমন্ডল গ্রামে হালিম মেম্বারের বাড়ির সামনে ৮/৯ জনের একটি সন্ত্রাসীদল রাজার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। রাজাকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র ছোড়া, চাপাতি, রামদা ও বল্লম দিয়ে কুপিয়ে জখম করে মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায়। তার শরিরে অসংখ্য কোপের চিহ্ন রয়েছে।

সজ্ঞাহীন অবস্থায় এলাকাবাসী উদ্ধার করে এবং তার স্বজনরা এসে তাকে লৌহজং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেলে রেফার্ড করে। গতকাল রাজার জ্ঞান ফিরলে তার কাছ থেকে ঘটনা শুনে তার আমি বাদী হয়ে উত্তর মেদেনী মন্ডল গ্রামের, চঞ্চল মৃধা (২২) পিতা হারুন মৃধা, নাদিম (১৯) পিতা এমারত মিয়া, স¤্রাট () পিতা হালিম মৃধা, সজল (২৪) পিতা কালু খা, ফাহাত (২৯) পিতা বাবুল, মো. জনি (৩৩) পিতা জব্বার বেপারী, সঞ্জয় শেখ (২৫) পিতা মৃত মোজাম্মেল শেখ, অঞ্জাত ২/৩ জনসহ ৮/৯ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছি।

এ ব্যাপারে লৌহজং থানার ওসি তদন্ত মফিজুর রহমান জানান, মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ক্রাইমভিশণ

Leave a Reply