শিলমন্দিরের সুইটি রক্ষা পেল বাল্য বিয়ের হাত থেকে

বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল চতুর্থ শ্রেণির স্কুলছাত্রী সুইটি আক্তার (১৪)। সুইটি মুন্সীগঞ্জ জেলা শহরের উপকন্ঠে পূর্ব শিলমন্দি গ্রামের কুতুবউদ্দিনের মেয়ে। সে পূর্ব শিলমন্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

জানা গেছে, বাবা-মা না থাকায় বড়বোন বিউটি বেগমের বাড়িতে বেড়ে ওঠা একমাত্র ছোটবোন সুইটিকে অভাব অনটনের কারণে একই গ্রামের মো. কামাল হোসেন এর সাথে বিয়ে দেয়ার জন্য সবধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। বেশ কয়েক মাস ক্লাসে অনুপস্থিত থাকার কারণে স্কুল শিক্ষিকা খোঁজ নিয়ে জানতে পারে তার বিবাহ হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারাবান তহুরার নির্দেশে চর শিলমন্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা নাছিমা আক্তার এবং সহকারী শিক্ষিকা রাবেয়া বশরি মুন্নি মেয়েদের বাড়িতে গিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেয় এবং অভিভাবকদের কাছ থেকে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবেনা মর্মে মুচলেখা আদায় করে।

এ বিষয়ে সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শারাবান তহুরা ব্রেকিংনিউজকে জানান, স্কুল শিক্ষিকাদের কাছ থেকে বিষয়টি জানতে পেরে তাৎক্ষণিকভাবে আমরা বাল্যবিবাহ নিরোধ টিম পাঠিয়ে বিয়ের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছি। সেই সাথে মেয়ের অভিভাবকদের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়েছি।

ব্রেকিংনিউজ

Leave a Reply