মানববন্ধন: মুন্সীগঞ্জে তনু হত্যার বিচারের দাবিতে

মো. হোসনে হাসানুল কবির: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের মেধাবী ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যার সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন সংগঠন।

রবিবার সকাল সাড়ে ১১টার সময় মুন্সীগঞ্জ জেলা শিল্পকলা প্রাঙ্গণে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন করা হয়। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলীপি প্রদান করা হয়েছে।

এ মানববন্ধনের আয়োজন করে ইচ্ছে পূরণ, লাইব্রেরি ফর দ্যা চিল্ড্রন (এলসি), স্বাধীনতা স্পোর্টিং ক্লাব, রেইজ ইউর ভয়েজ, ফ্রেন্ডস ক্লাব ও সর্বস্তরের জনগণ। এতে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন ও বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করেন। পরে একটি সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়।

প্রতিবাদ সভায় বক্তারা প্রশাসনের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে আসল অপরাধীকে বিচারের মুখোমখি করতে হবে। সেই সাথে তনুর পরিবারের লোকদের হয়রানি না করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান বক্তারা।

বক্তব্যে তারা আরো বলেন, আমাদের নারী বা ছাত্রী হিসেবে বিবেচনা না করে সাধারণ মানুষ যেন আর এমন বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডের শিকারে পরিণত না হয়। নারী দেহ পণ্য নয়, কারো ভোগের জন্য নয়; প্রকৃত মানুষ ধর্ষণ করে না এটা পৈশাচিক কাজ; দ্রত হত্যাকাণ্ডের মূল রহস্য উদঘাটনে সরকার আন্তরিক হবেন এমনটাই দাবি জানানো হয়।

প্রসঙ্গত, গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা সেনানিবাসের ভেতরেই বাসা থেকে ২০০ গজ দূরে টিউশন শেষে ফেরার পথে নিখোঁজ হন তনু। রাতেই অলিপুরের একটি ঝোপের মধ্যে তনুর লাশ পাওয়া যায়; পাশেই ছিল তার জুতা, ছেঁড়া চুল, ছেঁড়া ওড়না।

ভিক্টোরিয়া কলেজের অর্নাসের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু কুমিল্লা ময়নামতি সেনানিবাসের ভেতরে অলিপুর এলাকায় সপরিবারে থাকতেন। তার বাবা ইয়ার হোসেন ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী।

ব্রেকিংনিউজ

Leave a Reply